নির্বাচনে বিজয়ী হলে স্মার্ট মহাখালী রুপান্তরিত করবো :ইউসুফ সরদার (সোহেল)

নিউজ২৪লাইন:
হাবিব সরকার স্বাধীন :

পরিচ্ছন্ন রাজনীতির এক অনন্য উদাহরণ যুবসমাজের আস্থা বিশ্বস্ততার প্রতীক তরুণ নেতা বনানী থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ইউসুফ সরদার সোহেল, সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক ২০ নং ওয়ার্ড যুবলীগ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ২০ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ। তার নেতৃত্বে অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে অধিক চাঙ্গা হয়ে উঠেছে বনানী থানা যুবলীগ।মহাখালী আলো বাতাসে বেড়ে ওঠা এই তরুণ যুবক ইউসুফ সোহেল সরদার। একের পর এক ব্যতিক্রমী রাজনৈতিক কর্মসূচি হাতে নেয়ায় নেতাকর্মীরা চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। যুবলীগের এই ইউসুফ সরদার সোহেল সর্বোচ্চ ভুমিকা নিয়ে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের এক কাতারে এনে বলিষ্ঠ ভুমিকা রেখেছেন। যুবলীগের নেতা হলেও তার গ্রহনযোগ্যতা দলমত নির্বিশেষে সকল মহলেই রয়েছে। ইউসুফ সরদার সোহেল স্কুল জীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। তার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে সব সময় সেকরিফাইজ মানষিকতা নিয়ে কাজ করেছেন। নিজে ত্যাগ স্বীকার করে অন্যকে সুযোগ করে দেওয়া তার রাজনৈতিক জীবনের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ঠ। সততা ও বিশ্বস্থতার সাথে তিনি সমস্ত উন্নয়ন কাজের সাথে নিজেকে সব সময় ব্যস্ত রেখেছেন। ইউসুফ সরদার সোহেল জানান, নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষমতা সকলের থাকে না। হাতেগোনা কিছু মানুষের মধ্যে এই ক্ষমতাটি থাকে। এজন্য প্রাচীনকালে মনে করা হতো, নেতা যারা হতে পারে তারা জন্ম থেকেই এই ক্ষমতাটি অর্জন করে থাকে। কিন্তু পরবর্তীতে দেখা যায়, নেতা হওয়ার ক্ষমতাটি সবাই জন্ম থেকে অর্জন করে আসে না, বরং এমন অনেকেই আছে যারা নিজেদের প্রবল প্রচেষ্টার মাধ্যমে অনেকের মধ্য থেকে নিজেকে নেতা হিসেবে তুলে ধরে। তখনই ‘Leaders are born, not made’ এই ধারণাটি পরিবর্তিত হয় এবং সবাই বুঝতে পারে ‘Leaders are made, not born,’। কী উপায়ে একজন মানুষকে একজন যোগ্য নেতা হিসেবে গড়ে তোলা যায়? প্রশ্নটি তোমার মনেও ঘুরপাক খাচ্ছে, তাই না? প্রশ্নটি একটু অন্যরকমভাবে করি, তাহলে আরেকটু কৌতূহল জাগবে। কীভাবে আমি একজন নেতা হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারি? এবার ঘুরপাকের গতি বেড়ে গেল, ঠিক না? যাওয়ারই কথা। সবাই চায় অনেকের মধ্যে থেকেও আলাদাভাবে পরিচিত হতে। এমনটি তুমিও চাও। আর তাই জানতে চাচ্ছো নিজের মধ্যের নেতৃত্বদানের ক্ষমতাটিকে কীভাবে পরিচর্যা করে নিজেকে একজন নেতা হিসেবে গড়ে তুলতে পারবে। কোন কিছু শিখতে দ্বিধা না করা : শেখা বলতে যে শুধু বইপত্র পড়েই শিখতে হবে তা না। আমাদের চারপাশের পরিবেশ আর মানুষ থেকে শেখার অনেক কিছুই আছে। একজন যোগ্য নেতা এই সুযোগটির পুরোপুরি সদ্ব্যবহার করেন। আমরা নিজে নিজে কাজ করে কিছু শিখি। কিন্তু একজন নেতা হতে হলে তোমাকে অনেক দিকেই দৃষ্টি দিতে হবে। শুধু নিজের অভিজ্ঞতা না, অন্যের অভিজ্ঞতার মাঝে যদি শেখার কিছু থাকে তাহলে সেখান থেকেও শিক্ষা নিতে হবে। শিখতে যদি দ্বিধা করো তাহলে তুমি কোনদিন নেতৃত্ব দেয়ার গুণটি ফুটিয়ে তুলতে পারবে না। তুমি যত বেশি শিখবে, নানা রকম অবস্থার সাথে তুমি ততই খাপ খাইয়ে নিতে পারবে। তুমি যত বেশি শিখবে তত ভালোভাবে তুমি মানুষ চিনতে পারবে। তাই নিজেকে একজন নেতা হিসেবে গড়ে তুলতে চাইলে যে কোন কিছু থেকে শিক্ষা নিতে দ্বিধা করবে না। মূলত ত্যাগী, দক্ষ ও যোগ্য নেতা বাছাই করতে এ পদ্ধতি অনুসরন করা প্রয়োজন। এ পদ্ধতি গ্রহণ করায় ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের মধ্যে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। তিনি জানান, যেখানে সম্মেলন হয় সেখানে বায়োডাটা দেখে যোগ্যদের বাছাই করা হচ্ছে। তিনি মনে করেন শিক্ষিত, দক্ষ ও ত্যাগীদের নিয়ে প্রতিটি ইউনিটে কমিটি গঠনের লক্ষে কাজ করা প্রয়োজন। এতে ব্যাপক সাড়াও পাওয়া যাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
বনানী থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও সাবেক ছাত্রলীগ ২০ নং ওয়ার্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির সরদার বলেন, যুগ্ম আহবায়ক ইউসুফ সরদার সোহেলের দিক নির্দেশনায় বনানী থানা যুবলীগের প্রতিটি ইউনিটে যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করতে উৎসব মুখর পরিবেশে সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
দক্ষ মেধাবী আওয়ামী লীগ প্রেমিক বনানী থানা যুগ্ম আহবায়ক ইউসুফ সরদার সোহেলের দিক নির্দেশনায় বনানী থানা যুবলীগের প্রতিটি ইউনিটে যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করতে উৎসব মুখর পরিবেশে সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথেও ইউসুফ সরদার সোহেল যুক্ত আছেন। বর্তমান মহাখালী একাদশ ফার্স্ট ডিভিশন ফুটবল ক্লাবের সহ-সভাপতি। তিনি বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে দীর্ঘদিন যুক্ত থেকে একজন সাংস্কৃতিক কর্মী হিসেবে নিজেকে পরিচিত করে তুলেছেন। তিনি বনানী থানা যুব লীগের একটি বড় অংশ। সরজমিনে দেখা যায়, সীমাহীন বাঁধা তাকে ঠেকাতে পারেনি। মাঠে সর্বদায় কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে যেকোন অনুষ্ঠানে যেকোন সময় প্রস্তুত থাকেন। প্রতিটি কাজের সফলতার অনুপ্রেরণা ও সাহস দিয়েছেন জাকির সরদার। জাকির বলেন ইউসুফ সরদার, আওয়ামীলীগ পরিবারে সন্তান, যতই বাঁধা আসুক না নিষ্ঠার সাথে রাজনীতি করে যাবে। ইউসুফ সরদার এমন একটি মানুষ আল্লাহ ছাড়া কারো কাছে মাথা নত করবেনা। এত বাধার মাঝেও আপনি কি পেয়েছেন? তিনি বলেন রাজনীতির মাঠে কি পেয়েছি? কি পাবো কি পাব না । তা ভাবছি না।
শুধু ভাবছি। পৃথিবীর বুকে যতদিন রয়েছে সৎ এবং নিষ্ঠার সাথে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে নিয়ে সর্বদাই মাঠে কাজ করতে চাই।

Spread the love

পাঠক আপনার মতামত দিন