অবশেষে টাকলা মুরাদ কে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সারাদেশে আওয়ামীলীগের মিস্টি বিতরণ

নিউজ২৪লাইন: বেশ কিছুদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় টাকলা মুরাদ এর বিতর্কিত হাজার মন্তব্যর মাঝে চলচ্চিত্রের নায়িকা মাহিয়া মাহির সাথে ফোনালাপ নিয়ে সচেতন রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে এরই ধারাবাহিকতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে বুঝিয়ে দিলেন আওয়ামীলীগের ভিতরে কোন বেয়াদবের স্থান নেই,মুরাদ হাসান এর   লাইভে বিতর্কিত মন্তব্য এবং অডিও ফাঁস হয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে থাকা তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাকে এ বিষয়ে অবহিত করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) রাতে নিজের সরকারি বাসভবনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ডা. মুরাদকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামীকালের (মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর) মধ্যেই তাকে পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, লাইভে বিতর্কিত মন্তব্য, নারী নেত্রীদের নিয়ে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য এবং সবশেষ রোববার রাতে তার সঙ্গে এক চিত্রনায়িকার কথোপকথনের অডিও ভাইরাল হলে সেই সমালোচনার ঝড় আরও তীব্রতর হয়। এসব ঘটনায় আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীও তথ্য প্রতিমন্ত্রীর ওপর ক্ষুব্ধ হন। সেই সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় শুরু হয়।

চিকিৎসাশাস্ত্রের ডিগ্রিধারী মুরাদ হাসান জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী, মেস্টা ও তিতপল্যা) আসন থেকে প্রথমবার সংসদে যান নবম সংসদে।

২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একই আসন থেকে দ্বিতীয়বার জয়ী হওয়ার পর তাকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ দফায় সরকার গঠনের পাঁচ মাসের মাথায় ২০১৯ সালের মে মাসে স্বাস্থ্য থেকে সরিয়ে মুরাদকে তথ্য প্রতিমন্ত্রী করা হয়।

মুরাদ হাসান এর পদত্যাগের কথা শুনে সারাদেশে আওয়ামীলীগের মিষ্টি বিতরণ শুরু হয়েছে।

Spread the love

পাঠক আপনার মতামত দিন