চেয়ারম্যান শাহজালাল মাল এর সুনাম নষ্টের নানান পরিকল্পানা একটি কুচক্রীমহলে

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:
শরীয়তপুরের সখিপুর দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের স্বনামধন্য চেয়ারম্যান ও সখিপুর থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহজালাল মাল এ সুনাম নষ্টের পায়তারার অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি একটি স্থানীয় একটি কুচক্রীমহলের বিরুদ্ধে। আবারও নানান মাধ্যমে অপ্রচার ও গুজব ছড়াচ্ছে। এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান যথাযথ কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছে। এছাড়াও তিনি আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন।

জানা যায়, সম্প্রতি স্থানীয় একটি কুচক্রীমহল ইউপি চেয়ারম্যান শাহজালাল মালের ভালো কাজে ঈর্ষান্বিত হয়ে এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা নষ্ট করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তারই ধারবাহিকতায় (৭মে, শুক্রবার) ভোর ৪.৩০ মিনিট এর দিকে চাউলের বস্তা নিয়ে দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে অবস্থান করে।

পরে ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার-দফাদ্দার দিয়ে চেয়ারম্যান শাহজালাল মালকে ফোন করে, ফোন বন্ধ পাওয়ায় চেয়ারম্যানের ছোট ভাই নাজমুল মালকে ফোন করে ডেকে আনে। আর পরিকল্পিতভাবে ভিডিও দারন করে একটি নাটকীয় ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করে কুচক্রীমহল। পড়ে ভিডিও টি Hasan Masud
নামে একটি ফেইসবুক থেকে আপলোড দেওয়া হয়।

পরে স্থানীয় লোকজন চলে আসলে তারা পালিয়ে যায়। পরে ওই ভিডিও নানান মাধ্যমে প্রকাশ করে চেয়ারম্যান ও তার পরিবারের সদস্যদের সুনাম নষ্টের চেষ্টা করে।

এব্যাপারে স্থানীয় অনেকেই বলেন, চেয়ারম্যান শাহজালাল মাল দ্বিতীয় মেয়াদে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে একটি কুচক্রীমহল ঈর্ষান্বিত হয়ে তার বিরুদ্ধে লেগেছে। তারা খুবই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। একের পর এক অপকর্ম করেই চলছে। ওই কুচক্রীমহল নানান মাধ্যমে চেয়ারম্যান ও তাঁর পরিবারের সদস্যের সুনাম নষ্ট করার চেষ্টা করে চলছে।

এ ব্যাপারে দক্ষিন তারাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সখিপুর থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহজালাল মাল বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একে এম এনামুল হক শামীম এমপি মহোদয় এর কাছে আকুল আবেদন, আমি শপথ গ্রহনের পর থেকেই একটি কুচক্রমহল আমার পিছনে উঠে পড়ে লেগেছে, তারই ধারাবাহিকতায় (৭ মে, শুক্রবার) ভোর ৪.৩০ মিনিটে একটি অটোরিক্সায় করে ৬/৭ বস্তা মিনিকেট চাউল নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের সংলগ্ন অবস্থান করে, তখন আমার ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার ও দফাদ্দার আমাকে ফোন দিয়ে আমার বন্ধ পাওয়ায় আমার ছোট ভাই নাজমুল কে ফোন দিয়ে আনা হয়। আমার ছোট ভাই নাজমুল মাল যাওয়ার পর পর ওদেরকে জিজ্ঞাসা করে চাউল কোথায় থেকে এনেছো। তখন ওরা পূর্বপরিকল্পিত ভাবে ভিডিও ধারন করে। একটি নাটকীয় ঘটনা সাজিয়ে আমার সুনাম নষ্ট করতে চায়। লোকজন জরো হওয়ার সাথে সাথে তারা পালিয়ে যায়। আমি আপনার কাছে এই কুচক্রী মহলের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো তাই আপনার সহযোগিতা ও সু- দৃষ্টি কামনা করছি।

আর ওই কুচক্রীমহল যতই ষড়যন্ত্র করুক, তারা সফল হবে না। কারণ, এলাকার জনগণ আমার সাথে আছে। আমি সারাজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি এবং আগামীতেও করতে চাই । এ জন্য সকলের দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করছি।

এদিকে, চেয়ারম্যান শাহজালাল মালের বিরুদ্ধে নানান মাধ্যমে মিথ্যা ভাবে অপপ্রচার করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন জনসাধারণ ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Spread the love

পাঠক আপনার মতামত দিন