শৌলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী,ইব্রাহীম খান

শৌলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী,ইব্রাহীম খান

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ
মোঃ ইব্রাহীম খান, শরিয়তপুর সদর উপজেলার শৌলপাড়া ইউনিয়নের গয়ঘর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

২০১২ সালে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স মাষ্টাষ শেষ করে বর্তমানে ঢাকা জজ কোর্টে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হিসেবে নিয়োজিত আছেন।

পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নুরুজ্জামান খান ১৯৭১ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ভালোবেসে, তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং দেশরক্ষায় রাখেন বিশেষ অবদান। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতি পিতার ভালোবাসা দেখে তিনিও আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। তাইতো ২০০৩ সালে দশম শ্রেণীর ছাত্র থাকা অবস্থায়, শৌলপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ১নং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও শৌলপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। সে ধারাবাহিকতায় শরিয়তপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের ১নং সাংগঠনিক সম্পাদক, ১নং যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক থাকা কালিন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন।

বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ শৌলপাড়া ইউনিয়ন শাখার সভাপতি,

বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগ শরিয়তপুর জেলা শাখার আইন বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করতেছেন।

বিগত ২০১৬ সালে শৌলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলিয় মনোনয়ন প্রত্যাশি ছিলেন। কিন্তু দলের প্রতি আনুগত্য থেকে মনোনয়ন প্রাপ্তর সাথে থেকে দলের পক্ষে কাজ করেন। তাই আগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শৌলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন। দলের জন্য কি কাজ করেছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে, ইব্রাহিম খান বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষে সকল নির্বাচনে দলিও কাজ করেছি। ২০০১ সালে হেমায়েতউল্লা আওরঙ্গ বিপক্ষে, নৌকার পক্ষে কাজ করে বিভিন্নভাবে নির্যাতিত হয়েছি। বিএনপির গঠিত তত্বাবধায়ক সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে প্রতিনিয়ত আন্দোলন করেছি। ২০০৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের পক্ষে মাঠে কাজ করেছি। সামাজিকভাবে আমার সাধ্যানুযায়ী মসজিদ, মাদ্রাসা, ওয়াজ মাহফিলে অনুদানসহ গরিব অসহায় মানুষদের সহযোগিতা করে থাকি। ২০২০ সালে করোনা মহামারীর মধ্যে নগদ অর্থসহ খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছি। তিনি আরোও বলেন, আমি আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শরীয়তপুর সদর উপজেলার শৌলপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলিও মনোনয়ন প্রত্যাশা করছি। যদি আমাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়, তাহলে আমি সুনিশ্চিত বিজয় লাভ করবো এবং শৌলপাড়া ইউনিয়নের সকল জনগনের মৌলিক অধিকার তথা শিক্ষা, বাসস্থান, চিকিৎসা, খাদ্য ও বস্তু নিশ্চিত করবো।

ইউনিয়ন থেকে মাদক, সন্ত্রাস সহ রাষ্ট্র বিরুদ্ধী কাজ থেকে জনগণকে মুক্ত করে, একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে জনগণকে উপহার দেব।

Spread the love

পাঠক আপনার মতামত দিন