ভেদরগঞ্জে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর গ্রেফতার

নিউজ২৪লাইন:

আমান আহমেদ সজীব // শরীয়তপুর প্রতিনিধি ll
স্কুল পড়ুয়া দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসা পড়ুয়া দশম শ্রেণির ছাত্র বাপ্পি সরদার (১৫) নামে এক কিশোর কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

১০ সেপ্টেম্বর শনিবার ২০২২ সকাল সাড়ে ৯ টায় শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড সত্যপুর গ্রামে সরদার বাড়িতে ছোট একটি টিনের ঘর থেকে ছেলে ও মেয়েকে গ্রেফতার করা হয়।

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভেদরগঞ্জ পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড এলাকার ঐ স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করে সত্যপুরের সরদার বাড়ির স্বপন সরদারের ছেলে বাপ্পি সরদার।

গতিবিধি সন্দেহ জনক মনে হলে এবং বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকাবাসী পুলিশ খবর দিলে ভেদরগঞ্জ থানার এস আই রাজিব ঘটনাস্থলে গিয়ে মাদ্রাসায় পড়ুয়া বাপ্পীকে এবং ঐ স্কুল ছাত্রীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে ঐ ছাত্রী বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। ভেদরগঞ্জ থানা মামলা নং-০৪ তারিখ ১০-০৯-২০২২ ইং।

স্থানীয় প্রবীন মুরব্বি হাজী মীর বকশ সরদার বলেন, বাপ্পি ঐ মেয়েকে নিয়ে মাঝে মধ্যেই এই বাড়িতে আসে এবং ২ থেকে ৩ ঘন্টা সময় কাটায়। অন্য দিনের ন্যায় ঘটনার দিনও বাপ্পি ঐ মেয়েকে নিয়ে সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে এসে এই বাড়ির ছোট একটি টিনের ঘরে মেয়েকে নিয়ে দরজাবন্ধ করে দিলে আশেপাশের মহিলারা আমাকে ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি রুবেল মীরকে জানায় এবং এই ঘটনা শুনে আশে পাশের লোকজন জড়ো হয়। থানায় ফোন দিয়ে পুলিশ কে জানায় পরে পুলিশ এসে আপত্তিকর অবস্থায় পায় এবং তাদের দু’জনকেই আটক থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাহালুল খান বাহার বলেন, মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাদের দুজনকেই আটক করে থানায় নিয়ে আসে পরে ঐ স্কুল ছাত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষন মামলা করেন। ভেদরগঞ্জ থানা মামলা নং-০৪ তারিখ ১০-০৯-২০২২ ইং। নারী শিশু নির্যাতন দমন ২০০৩ সংশোধনী আইনের ৯/১ ধারা মোতবেক ধর্ষক বাপ্পীকে গ্রেফতার করে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। ঐ মেয়েকে মেডিকেল টেস্টের জন্য শরীয়তপুর পাঠানো হয়েছে।

Spread the love

পাঠক আপনার মতামত দিন