বাফুফের উন্নয়ন কমিটির সদস্য হলেন কাউন্সিলার নাছির

বাফুফের উন্নয়ন কমিটির সদস্য হলেন কাউন্সিলর নাছির
সরেজমিনবার্তা | নিউজ টি ০ দিন ২১ ঘন্টা ৭ সেকেন্ড আগে আপলোড হয়েছে। 990

নিউজ২৪লাইন:
বাফুফের উন্নয়ন কমিটির সদস্য হলেন কাউন্সিলার নাছির বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের উন্নয়ন কমিটির সদস্য মনোনীত হয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২০ নং ওয়ার্ড জননন্দিতও জনপ্রিয় কাউন্সিলর মোঃ নাছির।ছোট বেলা থেকেই তিনি ফুটবল খেলাধুলায় সাচ্ছন্দ্য বোধ করতেন।

ছাত্রজীবনে বিভিন্ন স্কুল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে খুব ভালো খেলা উপহার দিয়েছেন উপভোগকারীদের ছিনিয়ে নিয়েছেন অনেক পুরস্কার।

এরপর যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন রাজপথ। রাজনীতিতে ব্যস্ত সময়ের জন্য খেলোয়াড় হিসেবে কোন ফুটবল ক্লাবের তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত না করলেও অসংখ্য ক্লাবের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন।

প্রতিবছর ক্লাবগুলোতে তার নামে ফুটবল খেলার আয়োজন করা হয়। বিভিন্ন ক্লাবের দল গুলো উক্ত টুর্ণামেন্টে অংশগ্রহণ করে।২০ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনগুলোকে তাদের বিনোদন মুখী ভালো খেলা উপহার দিতে সার্বিক সহযোগিতা করেন তিনি।

খেলাধুলার প্রতি তার অগাধ উৎসাহ থাকায় খেলাধুলায় আগ্রহী ব্যক্তিদেরকে সকল প্রকার সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন। সমাজ সেবা রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনকে সম্পৃক্ত থাকায় বিভিন্ন খেলার মাঠ বেদখলে প্রতিবাদে মহাখালীতে মাঠ রক্ষার্থে আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে আসছে ৷উল্লেখ্য (গত ১৩ সেপ্টেম্বর)বাফুফের প্রেসিডেন্ট কাজী সালাউদ্দিন স্বাক্ষরিত নিয়োগপত্র পাওয়ার পর মোঃ নাছির গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ৷

উক্ত বিষয় কাউন্সিলর নাছির সাহেবের কাছে তার অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি জানান বাফুফের সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিকৃতজ্ঞ জ্ঞাপন করেন৷

টাইগারদের বিশ্বকাপের দল ঘোষণা

নিউজ ২৪লাইন:
স্পোর্টস ডেস্কঃ আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

অভিজ্ঞতা আর তারুণ্যের মিশেলে অবশেষে ঘোষণা করা হলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াড। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের মূল দল ঘোষণা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি রিজার্ভ হিসেবে আরও দুজন খেলোয়াড়কে রাখা হয়েছে বিশ্বকাপ দলে।

প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে ডাক পাওয়া ক্রিকেটারদের মধ্যে আছেন আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ নাঈম, শামীম হোসেন, শরিফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান ও নাসুম আহমেদ।

মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রেস কনফারেন্স রুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করেন দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন অন্য দুই নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন ও আব্দুর রাজ্জাক।

নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা প্রস্তুতি নিয়েই এবার মরুর বুকে পাড়ি দেবে টিম টাইগার্স। সবশেষ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দাপুটে পারফরমেন্স দেখায় টিম বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেও জয়রথ ধরে রেখেছে মাহমুদউল্লাহবাহিনী। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে টাইগাররা। তাই সাম্প্রতিক পারফরমেন্সের সূত্র ধরেই দল ঘোষণা করা হয়েছে বলে নির্বাচকদের বক্তব্যে স্পষ্ট হয়েছে।

এদিকে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আগেই না খেলার ঘোষণা দিয়েছেন দলের অন্যতম সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। এই ড্যাশিং ওপেনার না থাকার ফলে বিশ্বকাপে ওপেনিংয়ে লিটনের সঙ্গী হিসেবে পছন্দের শীর্ষে মোহাম্মদ নাঈম। আফিফ-সোহানও নিয়মিতভাবেই জায়গা পেয়েছেন একাদশে।

এছাড়া সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে রিয়াদ-সাকিব-মুশফিক-মুস্তাফিজ আর লিটন বড় ভরসা দলের। বোলিংয়ে মূল অস্ত্র মোস্তাফিজুর রহমান। তার সঙ্গে স্পিডস্টার তাসকিন আহমেদ ও সাইফউদ্দিন। অন্যদিকে দলের মূল স্পিন জাদুকর হিসেবে নাসুম আহমেদ এবং মেহেদী হাসানের ওপর ভরসা করেছে নির্বাচকরা। এছাড়া স্ট্যান্ডবাই হিসেবে রুবেল হোসেন এবং লেগস্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকে রাখা হয়েছে। অভিজ্ঞতা আর তারুণ্যের মিশেলে গড়া এই দল বিশ্বকাপে কেমন পারফরমেন্স করে তা দেখার অপেক্ষায় টাইগার সমর্থকরা।

আগামী ১৭ অক্টোবর শুরু হবে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ মিশন। প্রথম রাউন্ডে টাইগারদের প্রথম প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। ‌’বি‌’ গ্রুপের অন্য দুই দল স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনি। প্রথম রাউন্ডে সেরা দুই দলের মধ্যে থাকলে বাংলাদেশ পাবে সুপার-১২’র টিকিট।

বাংলাদেশের সবগুলো ম্যাচ মাঠে গড়াবে ওমানে। বাছাইপর্ব উতরে যেতে পারলে মূল পর্বে বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ডকে। এছাড়া বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা একটি দলের সঙ্গেও খেলতে হবে টাইগারদের।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল:
লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, মেহেদী হাসান, সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ, নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার ও শামীম পাটোয়ারী।ম
বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল:

কাঁদলেন মেসি বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- বার্সেলোনায় বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনে কাঁদলেন লিওনেল মেসি। আর কাঁদালেন ন্যু-ক্যাম্পের বাইরে ভিড় জমানো সমর্থকদের।

রোববার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে কান্নাভেজা চোখে মেসি জানান তার ছোটবেলার ক্লাব বার্সেলোনায় থেকে যাওয়ার পুরো ইচ্ছা ছিল। লা লিগার নতুন নিয়মের কারণে তেমনটা হয়নি। ফলে ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে বার্সেলোনা ত্যাগ করছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার।

সংবাদ সম্মেলনে কথা শুরু করার আগেই কেঁদে ফেলেন মেসি। এরপর বলেন, ‘এভাবে বিদায় নিতে হবে কখনো ভাবিনি। মনে হয় না কেউই ভেবেছে। চেয়েছিলাম মাঠ ভর্তি দর্শকের অভ্যর্থনার মধ্যে বিদায় নিতে।’ আবার কান্নায় ভেঙে পড়েন মেসি।

সর্বকালের অন্যতম সেরা এই তারকা বলেন, ‘দেড় বছর ধরে মাঠে দর্শকদের দেখতে পাইনি। তাদের না দেখে বিদায় নিতে হচ্ছে। এটাই বেশি কষ্ট দিচ্ছে।

মেসি বলেন, ‘আমি খুবই কষ্ট পাচ্ছি। এই ক্লাব ছেড়ে যেতে চাইনি। আমি বার্সেলোনাকে ভালোবাসি এখানেই থাকতে চেয়েছি। আমার চুক্তিও প্রস্তুত ছিল। ছুটি থেকে ফিরে আসার পর সব ঠিকঠাক ছিল কিন্তু শেষ পর্যন্ত কিছু হলো না।’

বিশ্বকাপ ফাইনাল ও কোপা আমেরিকা ফাইনাল হারের পরও বার্সেলোনা ছাড়ার দিনটিকেই জীবনের সবচেয়ে কঠিন বলে জানালেন মেসি। এখনও এই কিংবদন্তির বিশ্বাস হচ্ছে না প্রিয় কাম্প ন্যুয়ে আর ফিরবেন না।
তিনি বলেন, ‘জীবনে অনেক হার-জিতের মধ্যে দিয়ে গেছি। কিন্তু পরদিন অনুশীলনে নেমে সব ভুলে গেছি। আমি এখানে আর অনুশীলনে আসব না, মাঠে নামব না। এই ক্লাবের হয়ে আর খেলব না। এটাই আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে কঠিন মুহূর্ত।’

ফুটবলার হিসেবে বার্সেলোনায় ফেরার সম্ভাবনা খুবই কম মেসির। ৩৪ বছরের এই ফুটবলারকে হয়তো আগামী ২-৩ বছর পিএসজি বা অন্য কোনো দলের জার্সিতে দেখা যাবে। তবে বুটজোড়া তুলে রাখার পর আবারও ফিরতে চান প্রিয় বার্সেলোনায়।

মেসি যোগ করেন, ‘গত বছর আমি ক্লাব ছাড়তে চেয়েছি কিন্তু এই বছর সব পালটে গিয়েছিল। আমি বুঝতে পেরেছি যে এটা আমার ঘর আর আমি বার্সেলোনাকে কতটা ভালোবাসি। ২১ বছর ধরে আমি এখানে আমার স্ত্রী ও তিন আর্জেন্টাইন-কাতালান সন্তানকে নিয়ে থাকি। আমরা আবারও ফিরব। আমার সন্তানদেরও আমি একই কথা দিয়েছি।’

শৈশব থেকে লিওনেল মেসি বার্সেলোনাতেই খেলেছেন। চলতি বছরের পহেলা জুলাই থেকেই লিওনেল মেসি ফ্রি এজেন্ট, অর্থাৎ কোন ক্লাবের সাথেই আর চুক্তিবদ্ধ নন।

শুক্রবার বার্সেলোনা প্রেসিডেন্ট হোয়ান লাপোর্তা বলেন, লিওনেল মেসিকে এবার রাখা হলে ক্লাব অন্তত ৫০ বছরের ঝুঁকিতে পড়ে যেত। ঝুঁকি বলতে তিনি অর্থনৈতিক ঝুঁকির কথাই বলেছেন।

লিওনেল মেসি বেতন কমিয়ে বার্সেলোনার সাথে পাঁচ বছরের চুক্তি করতে সম্মত হয়েছিলেন বলে খবর পাওয়া যায়, কিন্তু মেসিকে রাখতে বার্সেলোনাকে তাদের বেতন কাঠামোতে রদবদল আনতে হতো।

আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি বার্সেলোনার হয়ে ৬৭২ গোল করেন, ১০টি লা লিগা শিরোপা জেতেন, চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ট্রফি জেতেন। এছাড়া ছয়বার ব্যালন ডি অরও পান তিনি।

সাকিব ৪ ম্যাচ নিষিদ্ধ

আবাহনীর বিপক্ষে মাঠের ক্রিকেটে অশোভন আচরণ করায় মোহামেডান অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে ৪ ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন মোহামেডানের ক্রিকেট কমিটির প্রধান মাসুদুজ্জামান। তিনি জানান, আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে আচরণবিধি ভাঙায় চার ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন।

শুক্রবার আবাহনীর বিপক্ষে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের অসন্তোষ জানিয়ে দুই দফা স্টাম্প ভাঙায় সাকিবকে এ শাস্তি দেওয়া হয়।

বিস্তারিত আসছে….

পেছাতে পারে সিপিএল এর সময় সূচি।

করোনার কারণে স্থগিত হওয়া আইপিএল আয়োজন হতে যাচ্ছে আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে। একই সময়ে মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগও (সিপিএল)। দুই ফ্রাঞ্চাইজি লিগের সূচির সংঘর্ষ এড়াতে সিপিএলের সূচিতে পরিবর্তন আনতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে আবেদন জানিয়েছে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)।

করোনার ভয়াবহতায় এবারের আইপিএল মাঝপথেই স্থগিত হয়ে যায়। ভারত থেকে সরিয়ে এই টুর্নামেন্টটি আরব আমিরাতে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয় বিসিসিআই। সময়সূচি হিসেবে ধরা হয় সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের মধ্যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ফাঁকা সময়কে। তবে এই সূচি সাংঘর্ষিক হওয়ায় বেশ বিপাকে পরে বিসিসিআই।
২৮ আগস্ট থেকে শুরু হওয়ার কথা সিপিএল। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ১৯ সেপ্টেম্বর। সেই টুর্নামেন্ট থেকে আগত তারকাদের আরব আমিরাতে মাঠে নামার আগে তিন দিন আইসোলেশনে থাকতে হবে বলেও জানা যাচ্ছে।

ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভো, কাইরন পোলার্ডদের মতো ক্যারিবিয়ান তারকারা আইপিএল অন্যতম আকর্ষণ। সূচি জটিলতায় উইন্ডিজ তারকাদের প্রথম কয়েকটা ম্যাচে না পাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।
বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা জানান, ‘আমরা ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করছি। আশা করা হচ্ছে যদি সিপিএল কিছুদিন আগে শেষ করা সম্ভব হয়, তবে ক্রিকেটারদের এক বলয় থেকে দুবাইয়ের আরেক বলয়ে সময়মতো আনা যাবে

বাংলাদেশের কাছে ৩৩ রানে হেরেছে শ্রীলঙ্কা।

নিউজ24লাইন ডটকম,বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কার মধ্যকার তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে ৩৩ রানে হেরেছে শ্রীলঙ্কা।

এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে বাংলাদেশ ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৫৭ রান করেছিল। দলের পক্ষে ওপেনার তামিম ইকবাল ৫২, মুশফিকুর রহীম ৮৪ এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ করেন ৫৪ রান।

এছাড়া শেষ দিকে ব্যাটিং করতে নেমে ২২ বলে ২৭ রান করেন আফিফ হোসেন। ৯ বলে ১৩ রান করে সাইফউদ্দিন।

জবাব দিতে নেমে মেহেদী হাসান মিরাজের বোলিং তোপে পরে শুরুতেই দিশেহারা হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। এরপর সাইফউদ্দিন এবং মুস্তাফিজের বোলিং তোপে শেষটাও গুটিয়ে যায় তাদের।

শুরুতে মিরাজের বোলিং তোপে পরে মাত্র ১০২ রান তুলতেই ৬টি উইকেট হারায় তারা। এরপর হাসারাঙ্গা ও সানাকা মিলে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুলেন। তবে সেটা থেমে যায় সাইফউদ্দিনের বলে সানাকা বিদায় নিলে।

কলকাতার পথেই হাটলো হায়দ্রাবাদ!

পরপর দুইদিন চরম উত্তেজনাপূর্ণ দুই ম্যাচ উপহার দিলো ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ। এবারের আইপিএলে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের দ্বার প্রান্তে এসে হারতে হলো রান তাড়া করতে নামা দলকে।

 

বুধবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর দেয়া ১৫০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ছয় রানে হেরেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।আগের দিন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে ১৫২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করে ১০ রানে হেরেছিল কলকাতা নাইটরাইর্ডাস।

 

প্রথমে ব্যাটিং এ নেমে ওপেনার বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে ২৯ বলে ৩৩ রানে আসে। অন্যদিকে শেষ দিকে পর্যন্ত ক্রিজে থেকে ৪১ বলে ৫৯ রানের তোলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আরও  কেউই আহামরী রান করতে পারেননি।

 

২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে রয়েল চ্যালেঞ্জার্সরা। সানরাইজার্সের হয়ে তিনটি উইকেট নেন জেসন হোল্ডার। দুটি উইকেট শিকার করেন রশিদ খান।

 

নিজেদের আইপিএল ইতিহাসে এর আগে ১৫০ রানের কম করে ব্যাঙ্গালুরু ম্যাচ জিতেছিল প্রায় এক যুগ আগে। ২০০৯ সালের আসরে কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ১৪৫ রান করে জিতেছিল তারা। প্রায় ১২ বছর পর এবার হায়দরাবাদের বিপক্ষে এত কম রান করেও জয়ী দল হিসেবে মাঠ ছাড়ল ব্যাঙ্গালুরু।

 

১৫০ রানের লক্ষ্য খেলতে নেমে ভয়াবহ ভরাডুবির নজির গড়ে হায়দরাবাদ। শেষ চার ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ম্যাচটি হেরেছে ৬ রানের ব্যবধানে।

 

ব্যাটিং এ নেমে ৯ বলে ১ রান করে শুরুতেই ফিরে যান ঋদ্ধিমান সাহা। মনীষ পান্ডেকে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ৯৬ রানে বিদায় নেন তিনি। তার আগে জয়ের ভীত গড়ে দিয়ে ৩৭ বলে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার।

 

১১৫ রানের মাথায় বিদায় নেন জনি বেয়ারেস্টো ও মনীষ পান্ডে। এক রান যোগ হতে আউট হন আবদুল সামাদও।

 

১৩ বলে ১২ রান করেন বেয়ারেস্টো। ৩৯ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলেন পান্ডে। ২ বল খেলে রানের খাতা না খুলেই ফিরেন সামাদ। এরপর ৫ বলে ৩ রান করে বিদায় নেন বিজয় শঙ্কর। জেসন হোল্ডার ৫ বলে খেল চার রান করেন।

 

৯ বলে ১৭ রান করে রশিদ খান আশা দেখান। প্রথম বলেই ফিরেন শাহবাজ নাদিম। ২ বলে ২ রান করে অপরাজিত ছিলেন ভুবনেশ্বর কুমার। তার সঙ্গে ক্রিজে ছিলেন টি নাটারাজন।

 

২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রানের বেশি করতে পারেনি সানরাইজার্স।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ব্যাঙ্গালুরু: ১৪৯/৮, ২০ ওভার (ম্যাক্সওয়েল ৫৯, কোহলি ৩৩, শাহবাজ ১৪; হোল্ডার ৩/৩০, রশিদ ২/১৭৮)

 

হায়দরাবাদ: ১৪৩/৯, ২০ ওভার (ওয়ার্নার ৫৪, মণীশ ৩৮, রশিদ ১৭; শাহবাজ ৩/৭, সিরাজ ২/২৫, হার্শাল ২/২৫)

 

ফল: ব্যাঙ্গালুরু ৬ রানে জয়ী।

1 2 3 43