কলকাতার পথেই হাটলো হায়দ্রাবাদ!

পরপর দুইদিন চরম উত্তেজনাপূর্ণ দুই ম্যাচ উপহার দিলো ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ। এবারের আইপিএলে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের দ্বার প্রান্তে এসে হারতে হলো রান তাড়া করতে নামা দলকে।

 

বুধবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর দেয়া ১৫০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ছয় রানে হেরেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।আগের দিন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে ১৫২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করে ১০ রানে হেরেছিল কলকাতা নাইটরাইর্ডাস।

 

প্রথমে ব্যাটিং এ নেমে ওপেনার বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে ২৯ বলে ৩৩ রানে আসে। অন্যদিকে শেষ দিকে পর্যন্ত ক্রিজে থেকে ৪১ বলে ৫৯ রানের তোলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আরও  কেউই আহামরী রান করতে পারেননি।

 

২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে রয়েল চ্যালেঞ্জার্সরা। সানরাইজার্সের হয়ে তিনটি উইকেট নেন জেসন হোল্ডার। দুটি উইকেট শিকার করেন রশিদ খান।

 

নিজেদের আইপিএল ইতিহাসে এর আগে ১৫০ রানের কম করে ব্যাঙ্গালুরু ম্যাচ জিতেছিল প্রায় এক যুগ আগে। ২০০৯ সালের আসরে কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ১৪৫ রান করে জিতেছিল তারা। প্রায় ১২ বছর পর এবার হায়দরাবাদের বিপক্ষে এত কম রান করেও জয়ী দল হিসেবে মাঠ ছাড়ল ব্যাঙ্গালুরু।

 

১৫০ রানের লক্ষ্য খেলতে নেমে ভয়াবহ ভরাডুবির নজির গড়ে হায়দরাবাদ। শেষ চার ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ম্যাচটি হেরেছে ৬ রানের ব্যবধানে।

 

ব্যাটিং এ নেমে ৯ বলে ১ রান করে শুরুতেই ফিরে যান ঋদ্ধিমান সাহা। মনীষ পান্ডেকে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ৯৬ রানে বিদায় নেন তিনি। তার আগে জয়ের ভীত গড়ে দিয়ে ৩৭ বলে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার।

 

১১৫ রানের মাথায় বিদায় নেন জনি বেয়ারেস্টো ও মনীষ পান্ডে। এক রান যোগ হতে আউট হন আবদুল সামাদও।

 

১৩ বলে ১২ রান করেন বেয়ারেস্টো। ৩৯ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলেন পান্ডে। ২ বল খেলে রানের খাতা না খুলেই ফিরেন সামাদ। এরপর ৫ বলে ৩ রান করে বিদায় নেন বিজয় শঙ্কর। জেসন হোল্ডার ৫ বলে খেল চার রান করেন।

 

৯ বলে ১৭ রান করে রশিদ খান আশা দেখান। প্রথম বলেই ফিরেন শাহবাজ নাদিম। ২ বলে ২ রান করে অপরাজিত ছিলেন ভুবনেশ্বর কুমার। তার সঙ্গে ক্রিজে ছিলেন টি নাটারাজন।

 

২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রানের বেশি করতে পারেনি সানরাইজার্স।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ব্যাঙ্গালুরু: ১৪৯/৮, ২০ ওভার (ম্যাক্সওয়েল ৫৯, কোহলি ৩৩, শাহবাজ ১৪; হোল্ডার ৩/৩০, রশিদ ২/১৭৮)

 

হায়দরাবাদ: ১৪৩/৯, ২০ ওভার (ওয়ার্নার ৫৪, মণীশ ৩৮, রশিদ ১৭; শাহবাজ ৩/৭, সিরাজ ২/২৫, হার্শাল ২/২৫)

 

ফল: ব্যাঙ্গালুরু ৬ রানে জয়ী।

টেস্ট স্ট্যাটাস পেল বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল

 

২০০০ সালে বাংলাদেশ পুরুষ দল টেস্ট স্ট্যাটাস পায়। দুই দশকেরও বেশি সময় পর নারী ক্রিকেট দলও পেলো টেস্ট মর্যাদা। জাহানারা-সালমারা এখন সাদা পোশাকেও খেলতে পারবেন। এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে আইসিসি। বাংলাদেশের সঙ্গে টেস্ট মর্যাদা পেয়েছে জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তান নারী দল।

 

২০০৭ সালে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের যাত্রা শুরু হয়। ২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে পায় ওয়ানডে মর্যাদা। ২০১৮ সালে নারী এশিয়া কাপের শিরোপা জেতে বাংলাদেশ। সর্বোচ্চ পর্যায়ের ক্রিকেটে ১৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে খেলা বাংলাদেশ এখনো নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারেনি।

 

খেলেছে চার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

এতো দিন টেস্ট খেলেছে ১০টি নারী দল। যেখানে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং শ্রীলঙ্কার পাশাপাশি টেস্ট খেলেছে আইসিসির সহযোগী দেশ নেদারল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ড নারী দল।

করোনা পরিস্থিতিতেও স্থগিত হচ্ছে না বাংলাদেশ গেমসের বিশেষ আসর, রহস্যজনক গোপনীয়তায় সবকিছুই চলছে তড়িঘড়ি

সকল নিয়ম কানুনকে তুচ্ছ করে রহস্যজনক গোপনীয়তার মধ্য দিয়েই বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমস শুরু হয়েছে। কঠোর নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণ ছাড়াই বেশিরভাগ খেলোয়াড় অংশ নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যেই খেলোয়াড়, আয়োজক, কর্মকর্তা, কর্মচারী মিলিয়ে প্রায় আট হাজার সদস্যের বিরাট কাফেলা জড়ো হয়েছেন মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়াম। আয়োজকদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পৃক্ত সূত্রগুলো জানিয়েছে, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমসে অংশ নেওয়া আন্তঃবাহিনীর (ডিফেন্স  সদস্য) খেলোয়াড়রা সকলেই ভ্যাকসিন গ্রহণকারী, কিন্তু পক্ষান্তরে সিভিলিয়ান খেলোয়াড়দের প্রায় সকলেই করোনা ভ্যাকসিন বহির্ভূত রয়েছেন। তারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে টাকার বিনিময়ে ভ্যাকসিন গ্রহণ সংক্রান্ত ভ‚য়া সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে তা জমা দেয়া হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতিতেও স্থগিত হচ্ছে না বাংলাদেশ গেমসের বিশেষ আসর। তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন প্রজ্ঞাপনে সতর্ক বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন। মশাল প্রজ্জ্বলনে চমক দিতে চায় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন। নবীন-প্রবীন ক্রীড়াবিদদের হাত ঘুরে টুঙ্গিপাড়া থেকে নবম বাংলাদেস গেমসের মশাল আসবে ঢাকায়। এসব কারণে ১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালী এ গেমসের উদ্বোধন করার কথা থাকলেও দুদিন আগেই আজ ৩০ মার্চ ভোরে মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে অংশগ্রহণকারীরা সবাই হাজির হয়েছেন।

গত বছরের এপ্রিলে মাঠে গড়ানোর কথা ছিল প্রতিযোগিতাটির। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে তা স্থগিত করা হয়। তবে প্রায় এক বছর পিছিয়ে গেলেও প্রতিযোগিতার নামের সঙ্গে ‘২০২০’-ই রাখা হচ্ছে বলে জানালেন আয়োজকরা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী স্মরণীয় করে রাখতে এ গেমসের নাম দেয়া হয় ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমস’। বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত আগামী ১-১০ এপ্রিল বসবে বাংলাদেশ গেমসের নবম আসর। গত ১৬ জানুয়ারি কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিওএ’র সভাপতি ও সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

ঢাকাসহ বিভিন্ন বিভাগীয় শহরে আয়োজনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। গেমসে খেলোয়াড়, টিম অফিসিয়াল ও খেলা পরিচালনার জন্য টেকনিক্যাল অফিসিয়ালসহ আনুমানিক সাড়ে ৮ হাজার জন অংশ নেবেন। আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বাংলাদেশ গেমসে ৩১টি ডিসিপ্লিনে ৩৯৬ সোনাসহ মোট ১ হাজার ৩৩৮টি পদক দেয়ার কথা রয়েছে।

রামুতে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে টাইব্রেকারে রামু যুব একাদশ জয়ী।

নিজস্ব প্রতিবেদক, রামু :

রামুতে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ষষ্ঠ ম্যাচে জয় পেয়েছে রামু যুব একাদশ। বুধবার (২৪ মার্চ) অনুষ্ঠিত খেলায় টাইব্রেকারে কুতুবদিয়া ক্রীড়া পরিষদকে হারিয়েছে রামু যুব একাদশ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে রামুতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট। রামু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২১ এর প্রধান পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছেন, কক্সবাজার সদর-রামু আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল।

বুধবার বিকাল ৪ টায় রামু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ষষ্ঠ দিনের খেলায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, রামু উপজেলার রশিদনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এমডি শাহ আলম। শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২১ পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মো. গিয়াস উদ্দিন এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট পরিচালনা কমিটির খেলা ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সুকুমার বড়ুয়া বুলু জানান, রামুর সাবেক ও বর্তমান ফুটবল খেলোয়াড়দের পরিচালনায় রামুতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে। কক্সবাজার জেলার রামু, উখিয়া, চকরিয়া, মহেশখালী, পেকুয়া, কুতুবদিয়া ও কক্সবাজার সদর উপজেলার ১৬টি ফুটবল দল এ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করছে।

খেলার নির্ধারিত সময়ে খেলা গোল শূণ্যভাবে শেষ হয়। ফলে খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। এতে রামু যুব একাদশের কাজে পরাজিত হয়, কুতুবদিয়া ক্রীড়া পরিষদ। উভয় দলের খেলোয়াড়দের আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে টানটান উত্তেজনাপূর্ণ খেলা দর্শকদের আন্দোলিত করেছে। খেলা পরিচালনায় শফিউল আলম রেফারী, রোস্তম আলী সৈকত, সুমন দে ও কামরুল আহসান সোহেল সহকারি রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, সুশান্ত পাল বাচ্চু। খেলায় ধারাভাষ্যে ছিলেন, বেলাল আজম হেলালী।

রামু যুব একাদশ : রানা বড়ুয়া (গোলরক্ষক), ভূ ভূ মারমা (অধিনায়ক), মো. শাকিল, মো. আরিফ, ছোটন, রাসেল, রানা-২, এ্যাবিল (নাইজেরিয়ান খেলোয়াড়), আয়াত উল্লাহ, জাহেদুল ইসলাম রবিন, মো. দিদার। দলে অতিরিক্ত খেলোয়াড় ছিলেন, গুঞ্জন বড়ুয়া, মিঠুন বড়ুয়া, রিসাত, আজাদ, রাকিব, নুরু, ডেবিট।

কুতুবদিয়া ক্রীড়া পরিষদ : আইয়ুব খান (গোলরক্ষক), আকতার হোসেন (অধিনায়ক), মামুনুল ইসলাম, মিনহাজ, মিল্টন, মোহাম্মদ আইয়ুব, সাদ্দাম হোসেন, রিদুয়ান, নেছার উদ্দিন, নেয়ামত উল্লাহ, মিজবাহ, আকতার হোসেন। দলে অতিরিক্ত খেলোয়াড় ছিলেন, মোজাহিদ, শাহেদ, সালাউদ্দিন, তৌহিদ।

বুধবার (২৫ মার্চ)  রামু ষ্টেডিয়ামে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেণ্টের সপ্তম দিনে মুখোমুখি হবে ‘রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার’ বনাম ‘মহেশখালী ফুটবল ক্লাব।

রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগ উদ্বোধন : ট্রাইব্রেকারে জয়ী মমতাজুল আলম স্মৃতি ফুটবল দল।

নিজস্ব প্রতিবেদক, রামু

রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগের উদ্বোধনী খেলায় ট্রাইব্রেকারে জয়ী হয়েছে ‘মমতাজুল আলম স্মৃতি ফুটবল দল’। ট্রাইব্রেকারে ‘মমতাজুল আলম স্মৃতি ফুটবল দল’ ৬-৫ গোলে ‘অজিত বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলকে’ পরাজিত করেছে। এতে জয়ী দল দুই পয়েন্ট ও পরাজিত দল এক পয়েন্ট অর্জন করেছে। উদ্বোধনী খেলায় ‘ম্যান অবদ্যা ম্যাচ’ নির্বাচিত হয়েছেন, মমতাজুল আলম স্মৃতি ফুটবল দলের রিটু বড়ুয়া ও ‘অজিত বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের রাশেদুল ইসলাম বাবু। উদ্বোধনী দিনেই রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগকে ঘিরে সাবেক ফুটবল খেলোয়াড় ও ফুটবল ক্রীড়া অনুরাগীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) বিকালে রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত ‘রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগ ২০২১’ উদ্বোধন করেন, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ‘বাফুফে’ সদস্য বিজন বড়ুয়া। উদ্বোধনী খেলায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, রামু উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন, রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগ ২০২১ পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক পলক বড়ুয়া আপ্পু।

রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের আয়োজনে অনুষ্ঠিত খেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফসানা জেসমিন পপি, ভাইস চেয়ারম্যান মো. সালাহ উদ্দিন, রামু সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আবদুল হক, রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সুবীর বড়ুয়া বুলু, রামু বাঁকখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাহী পরিচালক কিশোর বড়ুয়া,
রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সাবেক সভাপতি ছিদ্দিক আহমদ, রামু ব্রাদার্স ইউনিয়নের সভাপতি মো. নবু আলম, সাবেক ফুটবলার ছালেহ আহমদ, আকতার আহমদ, অধীর বড়ুয়া, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো।

রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগের উদ্বোধনী দিনে, নির্ধারিত সময়ে উভয় দল দাপটের সাথে খেলেও খেলার শেষ মিনিট পর্যন্ত কোন দল গোল করতে পারেনি। এতে ট্রাইব্রেকারে নিষ্পত্তি করা হয় উদ্বোধনী খেলাটি। ফলে জয়-পরাজয়ে উভয় দল পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নেয় নিয়েছে।

রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগ উদ্বোধনী দিনের খেলা পরিচালনায় শফিউল আলম রেফারী, মনজুরুল হক ও মো. ইসমাইল সহকারী রেফারী এবং ওমর ফারুক মাসুম চতুর্থ রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন। খেলার ধারাভাষ্যে ছিলেন, সাংবাদিক ও ছড়াকার দর্পণ বড়ুয়া। খেলা আয়োজনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন, রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগ ২০২১ পরিচালনা কমিটি।

উদ্বোধনী দিনের খেলায় ‘মমতাজুল আলম স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছেন, রিটু বড়ুয়া (অধিনায়ক), কাকন বড়ুয়া (গোলরক্ষক), প্রতীতি বড়ুয়া, বিদ্যুৎ বড়ুয়া, আবুল মনছুর, ইলক বড়ুয়া, প্রবাল বড়ুয়া, চম্পক বড়ুয়া, আপন বড়ুয়া, চঞ্চল বড়ুয়া, মো. ইসহাক পাখি, (নুরুল হক চৌধুরী, সুকুমার বড়ুয়া বুলু)।

‘অজিত বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছেন, অরুন বড়ুয়া (অধিনায়ক), অভি বড়ুয়া নুনু (গোলরক্ষক), ফরিদুল আলম, উজ্জ্বল বড়ুয়া, টিপু বড়ুয়া, কাজল বড়ুয়া, রাশেদুল হক বাবু, সুকুমার বড়ুয়া, ডেবিট বড়ুয়া, গিয়াস উদ্দিন, সুরেশ বড়ুয়া, (অসিত পাল, রুহুল আমিন রকি)।

রামু সোনালী অতীত ফুটবল লীগের দ্বিতীয় দিন শনিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকালে রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ‘পরিতোষ চক্রবর্তী বাবুল স্মৃতি ফুটবল দল’ মুখোমুখি হবে ‘অলক বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের সাথে।

রামুতে অন্তঃ ফুটবল লীগের ষষ্ঠ দিনে জয়ী ‘নুরুল ইসলাম বাচ্চু মিয়া স্মৃতি ফুটবল দল’


নিজস্ব প্রতিবেদক, রামু
রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগের ষষ্ঠ দিনের খেলায় জয়ী হয়ে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে ‘নুরুল ইসলাম বাচ্চু মিয়া স্মৃতি ফুটবল দল’। গতকাল মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) রামুতে অন্ত: ফুটবল লীগের ষষ্ঠ দিনের ছোটদের খেলায় ট্রাইব্রেকারে ‘নুরুল ইসলাম বাচ্চু মিয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ৩-২ গোলে ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’কে পরাজিত করে। নির্ধারিত সময়ে উভয় দল আক্রামণ পাল্টা আক্রমণে খেলেও গোলের দেখা পায়নি কেউ। ফলে ট্রাইব্রেকারে খেলা নিষ্পত্তি করা হয়। মঙ্গলবারের খেলায় ট্রাইব্রেকারে জয়ী হয়ে ‘নুরুল ইসলাম বাচ্চু মিয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ২ পয়েন্ট এবং ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ১ পয়েন্ট অর্জন করে। উভয় দল নিজেদের তিন খেলায় ৫ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে অবস্থান নেয়। ফলে রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগের ছোটদের খেলায় ফাইনালে আবারও ‘নুরুল ইসলাম বাচ্চু মিয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ মুখোমুখি হবে ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের সাথে।
বড়দের খেলায় ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ১-০ গোলে ‘অমল বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’কে পরাজিত করেছে। খেলার প্রথমার্ধে ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের’ জিগর গোল করে দলকে ১-০ গোলে এগিয়ে নেয়। গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে খেলেও শেষ রক্ষা করতে পারেনি ‘অমল বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’। নির্ধারিত সময়ে খেলা ১-০ গোলে শেষ হয়। তিন খেলায় ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ফাইনালে খেলার অবস্থান নিশ্চিত করে।
রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগের ষষ্ঠ দিনের ছোটদের খেলায় সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছে ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের’ অধিনায়ক সোহান আবেদীন জিহাদী এবং বড়দের খেলায় সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছে ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের অধিনায়ক রিদোয়ান। দুইটি খেলায় সুফল বড়ুয়া আব্বু রেফারী, জমির উদ্দিন ও আসিফ সাওয়াল সহকারী রেফারির দায়িত্ব পালন করেন। খেলার ধারাভাষ্যে ছিলেন, ওমর ফারুক মাসুম।
খেলায় ‘নুরুল ইসলাম বাচ্চু মিয়া স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছে রবিউল হাসান (অধিনায়ক), হাবিব কালাম সায়মন মেনু (গোলরক্ষক), সুজয় বড়ুয়া, সারওয়াত ওবাইদ ওয়াফী, অংকন বড়ুয়া জয়, নাহিয়ান, আলাউদ্দিন, নবজীত শর্মা, শ্রেয়ান বড়ুয়া, রাবিব, আরিফ। ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছে, সোহান আবেদীন জিহাদী (অধিনায়ক), স্বপ্নিল বড়ুয়া বর্ণ (গোলরক্ষক), শচীন বড়ুয়া, আকিব, মাহিদ, ইয়াসিন, বর্ণ, ছন্দক, সাইফুল, শুভাশীষ বড়ুয়া অর্ঘ্য, রাফি, প্রাঞ্জল। বড়দের খেলায় ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে খেলেছে, রিদোয়ান (অধিনায়ক), মো. মাহিন (গোলরক্ষক), কবির, রিফাত, আবদুর রহমান, জমির উদ্দিন, শফিক, মো. জিগর, ইসমাইল, জয়নাল উদ্দিন, আবদুল্লাহ, ওমর ফারুক। ‘অমল বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছে, রমজান আলী (অধিনায়ক), সাইফুল (গোলরক্ষক), চাঁদ, জয়নাল, মহসিন, আমীন, ওবামং, নজরুল, নুর, মহিউদ্দিন, ইমাম।
রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগের সপ্তম দিন বুধবার (৬ জানুয়ারি) বিকালে রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বড়দলের একটি খেলা অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৩টায় মুখোমুখি হবে ‘মোহাম্মদ ওবাইদুল হক চেয়ারম্যান স্মৃতি ফুটবল দল’ বনাম ‘অমল বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’।

রামুতে অন্তঃ ফুটবল লীগে মর্যাদা ধরে রাখলো ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল।’


নিজস্ব প্রতিবেদক, রামু
রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগে বড়দের খেলায় জয় নিশ্চিত করেছে ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’। অন্ত: ফুটবল লীগের চতুর্থ দিনের বড়দের খেলায় ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ৩-০ গোলে শক্ত প্রতিপক্ষ ‘ওসমান সরওয়ার আলম চৌধূরী স্মৃতি ফুটবল দল’কে পরাজিত করেছে। ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের’ পক্ষে খেলার প্রথমার্ধে নুরুল কবির, দ্বিতীয়ার্ধে মো. রিফাত ও সাইমুম ছিদ্দিকী গোল করে দলের বিজয় নিশ্চিত করে। অপরদিকে ছোটদের ‘নিকাশ বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ বনাম ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলের’ খেলাটি নির্ধারিত সময়ে গোল শূণ্যভাবে শেষ হয়েছে। ফলে খেলা ট্রাইব্রেকারে নিষ্পত্তি করা হয়। এতে ‘নিকাশ বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ৩-২ গোলে ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলকে’ পরাজিত করে। ট্রাইব্রেকারে খেলা নিষ্পত্তি হওয়ায় অন্ত: ফুটবল লীগের নিয়ম অনুযায়ী ছোটদের খেলায় ‘নিকাশ বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ২ পয়েন্ট এবং ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ ১ পয়েন্ট অর্জন করেছে। বড়দের খেলায় ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ পূর্ণ ৩ পয়েন্ট অর্জন করেছে।
রবিবার (৩ জানুয়ারি) রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে চতুর্থ দিনের খেলায় খেলোয়াড়দের উৎসাহ দিয়ে বক্তৃতা করেন, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভূট্টো। এ সময় অংশগ্রহণকারী দলের খেলোয়াড় সহ রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টারের খুদে ফুটবল খেলোয়াড়, কর্মকর্তা এবং সাবেক ফুটবলারা উপস্থিত ছিলেন। রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগের চতুর্থ দিনের দুইটি খেলা পরিচালনায় সুফল বড়ুয়া আব্বু রেফারী, আসিফ সাওয়াল ও আবু ইউসুফ চৌধূরী নূর সহকারী রেফারির দায়িত্ব পালন করেন।
খেলায় ‘নিকাশ বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছে, হোবাইব (অধিনায়ক), দৃশ্য বড়ুয়া (গোলরক্ষক), রিজোয়ানুল হক তাওসিফ, ঐশিক, অংশু বড়ুয়া, আরফিন, পিওস, জাহাঙ্গীর, জনি, প্রিতম। ‘খোকা মোহন বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে’ খেলেছে, জিহাদী (অধিনায়ক), স্বপ্নিল বড়ুয়া বর্ণ (গোলরক্ষক), শচীন বড়ুয়া, আকিব, মাহিদ, ছন্দক, শুভাশীষ বড়ুয়া অর্ঘ্য, রাফি, শংকর, ইয়াসিন, সাইফুল, প্রাঞ্জন।
বড়দের খেলায় ‘অমিয় বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দলে খেলেছে, জমির উদ্দিন (অধিনায়ক), মো. মাহিন (গোলরক্ষক), কবির, রিফাত, আবদুর রহমান, শফিক, মো. জিগর, ইসমাইল, জয়নাল উদ্দিন, রিদোয়ান, আবদুল্লাহ, ওমর ফারুক। ‘ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরী স্মৃতি ফুটবল দলে খেলেছে, জমির উদ্দিন (অধিনায়ক), তালেব (গোলরক্ষক), জসিম উদ্দিন, শান্ত বড়ুয়া, ওমর ফারুক, আকিব, শরিফুর রহমান তালিক, আবছার, নিঝুম বড়ুয়া, ইমন শর্মা, তাওসিফ, রাশেদ মাহমুদ।
রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার অন্ত: ফুটবল লীগের পঞ্চম দিন সোমবার (৪ জানুয়ারি) বিকালে রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ছোটদল ও বড়দলের দুইটি খেলা অনুষ্ঠিত হবে। পঞ্চম দিনের বিকাল ৩টায় প্রথম খেলায় ছোটদলে ‘নিকাশ বড়ুয়া স্মৃতি ফুটবল দল’ মুখোমুখি হবে ‘ফরোখ আহমদ চৌধুরী লালু স্মৃতি ফুটবল দলের’ সাথে এবং দ্বিতীয় খেলায় বড়দলে বিকাল ৪টায় ‘মোহাম্মদ ওবাইদুল হক চেয়ারম্যান স্মৃতি ফুটবল দল’ মুখোমুখি হবে ‘ওসমান সরওয়ার আলম চৌধূরী স্মৃতি ফুটবল দলের’ সাথে।
এদিকে রবিবার (৩ জানুয়ারি) বিকাল ৪টায় দক্ষিণ শ্রীকুল মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে জয়ী হয়েছে রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার। রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের দক্ষিণ শ্রীকুল মাঠে অনুষ্ঠিত নকআউট পদ্ধতির এ খেলায় ট্রাইব্রেকারে রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার ৫-৪ গোলে দরগাহপাড়া দুরন্ত সেভের ষ্টার ফুটবল দলকে পরাজিত করেছে। অধিনায়ক রমজান আলীর নেতৃত্বে রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টার এ টুর্ণামেন্টের উদ্বোধনী খেলায় দলের বিজয় নিশ্চিত করে। দক্ষিণ শ্রীকুল মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধনী খেলায় ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয় রামু ফুটবল ট্রেনিং সেন্টারের সাইফুল ইসলাম।

1 2 3 43