প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ হেলিকপ্টারযোগে নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ ও সিলেট জেলার বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন

নিউজ২৪লাইন:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ হেলিকপ্টারযোগে নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ ও সিলেট জেলার বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন। ছবি : ফোকাস বাংলা

২৫জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে স্মরণকালের সেরা উৎসব একেএম এনামুল হক শামীম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

নিউজ২৪লাইনঃ

আজ   ১৭ জুন, ২০২২ (বাসস) : পানি সম্পদ উপমন্ত্রী   একে  এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ২৫ জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে স্মরণকালের সেরা উৎসব। নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত পদ্মা সেতু উদ্বোধনের অপেক্ষায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সেতুর উদ্বোধন নিয়েও ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। কিন্তু কোন লাভ হবে না। দেশের ইতিহাসে স্মরণকালের সেরা ও ঐতিহাসিক উৎসব হবে পদ্মার পাড়ে।’
উপমন্ত্রী আজ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ঢাকাস্থ শরীয়তপুর সাংবাদিক সমিতির নতুন কমিটির অভিষেক ও ‘স্বপ্নের পদ্মা সেতু: সমৃদ্ধির পথে শরীয়তপুরসহ দক্ষিণাঞ্চল’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
এনামুল হক শামীম বলেন, ২০০১ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর নির্মান কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। বিএনপি ক্ষমতায় এলে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। পরে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর পদ্মা সেতু নির্মাণ অগ্রাধিকার তালিকায় রাখেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। সে সময় বিশ্বব্যাংক একটি মিথ্যা অজুহাত দিয়ে অপবাদ দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। এরপর প্রধানমন্ত্রী চ্যালেঞ্জ করেছিলেন নূন্যতম দুর্নীতি হয়নি। কানাডার আদালতে দুর্নীতির কোন প্রমাণ হয়নি। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর ঘোষণা সবার আশংকা উড়িয়ে দিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা পদ্মা সেতু প্রকল্প বাস্তবায়ন করেন।
তিনি বলেন, ‘বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, খালেদা জিয়া নাকি পদ্মা সেতুর কাজ শুরু করেছিলেন। ডাহা মিথ্যা। বিএনপির জন্মই মিথ্যার ওপর। মিথ্যা বলাটাই তাদের স্বভাবে পরিণত হয়েছে। আগামী নির্বাচনেও দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করবে।

বিশেষ অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর ৩ আসনের সংসদ সদস্য  নাহিম রাজ্জাক এমপি,
শরীয়তপুর সাংবাদিক সমিতি সভাপতি বেনজির আহমেদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদের পরিচালনায়, আরো  বক্তব্য রাখেন , বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান  নগরবিদ ও সভাপতি শরীয়তপুর জেলা শিক্ষা ট্রাস্ট প্রফেসর নজরুল ইসলাম, বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব আখতার হোসেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলমসহ শরীয়তপুর সাংবাদিক সমিতির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রথমবারের মতো আলোকিত হলো পদ্মা সেতুর ৬,১৫ কিলোমিটার

  নিউজ২৪লাইন:

নিজস্ব প্রতিবেদন 

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তে ঝলমল করে জ্বলে উঠল আলো। মঙ্গলবার (১৪ জুন) সন্ধ্যা ৬টা ৫৪ মিনিটে বিদ্যুৎ-সংযোগের মাধ্যমে মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তের ৪১৫টি ল্যাম্পপোস্টে একসঙ্গে বাতি জ্বালানো হয়। এই প্রথম পুরো সেতুর সবকটি ল্যাম্পপোস্টে বাতি জ্বলল।

এর আগে গত ৪ জুন বিকেলে পদ্মা সেতুতে পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম বৈদ্যুতিক বাতি জ্বালানো হয়। ওই দিন সেতুর ১৪ থেকে ১৯ নম্বর পিলারের মাঝামাঝিতে ২৪টি ল্যাম্পপোস্টে বাতি জ্বালানো হয়েছিল। এরপর ১১ জুন পর্যন্ত পরীক্ষামূলকভাবে সেতুর সব কটি বাতি জ্বালানো হয়। তখন সেতুতে জেনারেটরের মাধ্যমে বাতি জ্বালানো হয়েছিল। গতকাল সোমবার মাওয়া প্রান্তে বৈদ্যুতিক সংযোগের মাধ্যমে ২০৭টি বাতি জালানো হয়।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুল কাদের মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জানান, মুন্সীগঞ্জ ও জাজিরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির দেওয়া বৈদ্যুতিক সংযোগের মাধ্যমে এই প্রথম সম্পূর্ণ সেতুর ৪১৫টি ল্যাম্পপোস্টে পরীক্ষামূলকভাবে বাতি জ্বালানো হয়েছে।

 

প্রকৌশলী বলেন, সেতুর ৯৯ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। এর মাধ্যমে দিবা-রাত্রি যানবাহন চলাচলের জন্য সবটুকু কাজ শেষ হয়েছে।

সেতু বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ২৫ নভেম্বর মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে সেতুর ভায়াডাক্টে প্রথম ল্যাম্পপোস্ট বসানোর কাজ শুরু হয়েছিল। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার সেতুতে মোট ৪১৫টি ল্যাম্পপোস্ট স্থাপন করা হয়। এর মধ্যে মূল সেতুতে ৩২৮টি, জাজিরা প্রান্তের ভায়াডাক্টে ৪৬টি, মাওয়া প্রান্তের ভায়াডাক্টে ৪১টি ল্যাম্পপোস্ট স্থাপন করা হয়। মূল সেতুতে ল্যাম্পপোস্ট বসানোর কাজ শেষ হয় ১৮ এপ্রিল। ২৪ মে পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের ৪২ নম্বর পিলারে সেতুর সাবস্টেশনে বিদ্যুৎ-সংযোগ দেওয়া হয়। শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি থেকে ৮০ কিলোওয়াট ও মুন্সীগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি থেকে দেওয়া আরও ৮০ কিলোওয়াট বিদ্যুতে সেতুর ৪১৫টি ল্যাম্পপোস্টে বাতি জ্বালানো হলো।

 

১৫ জুন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জাজিরায় বোমা বিস্ফোরণ, সহিংসতা, মসজিদ,বাড়িঘর ভাঙচুরসহ আহত ৬

নিউজ২৪লাইন:
মঞ্জুরুল ইসলাম রনি, শরীয়তপুরঃ
শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বড় গোপালপুর ইউনিয়নে রোববার সন্ধায় কবিরাজ কান্দি, গোপালপুর স্ট্যান্ড এলাকায় বর্তমান চেয়ারম্যান লিটু সরদার এর আনারস মার্কা সমর্থকদের সাথে চেয়ারম্যান প্রার্থী কেএম জামিল হোসেন এর মোটরসাইকেল মার্কা দু গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আনারস মার্কার পক্ষের অন্তত ১০ জন মারাত্নক ভাবে আহত হয়েছে। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় বোমা বিস্ফোরন, মসজিদ, বাড়ীঘরসহ উভয় পক্ষের চেয়ারম্যান প্রার্থীর নিবার্চনী প্রচার কম্পে ভাংচুর করে হামলাকারীরা। এ ঘটনায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সরজমিন গেলে স্থানীয় লোকজন জানায়, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রায়শই কেএম জামিল হোসেন ও মাহবুবুর রহমান লিটু সরদার সমর্থকদের সাথে মাঝেমধ্যেই মারামারির ঘটনা ঘটে। সেই সূত্র ধরেই গতকাল বিকেলে লিটু সরদার সমর্থিত লোকদের সাথে দন্দে জড়ায় জামিল কবিরাজ সমর্থকেরা।

এসময় উভয় পক্ষই দেশীয় ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে মারামারিতে জড়িয়ে পরে। এক পর্যায়ে লিটু সরদার সমর্থকেরা কিছুটা পিছু হটলেও কিছুক্ষণ পরে বাবুল আকনের নেতৃত্বে লিটু সরদার সমর্থিত লোকজন জামিল কবিরাজ ও সাবেক এমপি মাস্টার মুজিবুর রহমানের বাড়তে হামলা চালায়।

এসময় শতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয় এবং কয়েকটি বসতঘরেও ভাঙচুর করা হয়। পাশাপাশি এই ঘটনায় একটি মসজিদে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয় ও আরও একটি মসজিদে ইটপাটকেল ও লাঠি দিয়ে আঘাত করে জানালার গ্লাস ভেঙে দেয়া হয়। পাশাপাশি দুইটি ক্লাবে থাকা ৪ শতাধিক চেয়ার ভাঙচুর করা হয়।

এই ঘটনায় চেয়ারম্যান প্রার্থী জামিল কবিরাজ অভিযোগ করে বলেন, লিটু সরদারের সমর্থনে থাকা বাবুল আকন ভদ্রাসন ও শিবচরের লোকজন নিয়ে মারামারি করতে আসছে। তারা আমাদের দুইটি ক্লাবে থাকা ৫ শতাধিক চেয়ার এবং আমাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করেছে। শুধু তাই নয় আল্লাহ’র ঘর মসজিদ ভাঙচুর করেছে।

এ হামলার ঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে জাজিরা থানা পুলিশ।

এই বিষয়ে জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনার পরপরই আমি সহ পুলিশের একাধিক টীম ওই এলাকায় কাজ করছে। সাধারণ মানুষের নিরাপত্তায় আমরা বড় গোপালপুর এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ান করেছি, এখন পর্যন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি।

ভেদরগঞ্জে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ভাতিজিকে ধর্ষণ করে প্রতিবেশী চাচা জেলহাজতে

নিউজ২৪লাইন:

আমান আহমেদ সজীব :

শরীয়তপুর  জেলার   ভেদরগঞ্জ পৌরসভায় এক বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ভেদরগঞ্জ পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড গৈড্যা এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেফতার রকৃত ব্যক্তি হলেন মোঃ   জাহাঙ্গীর গাইন (৪২) বাড়ি ভেদরগঞ্জ পৌরসভায়।  শুক্রুবার ভেদরগঞ্জ থানা থেকে তাঁকে শরীয়তপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ও পরিবার সুত্রে জানা যায়, প্রতিবন্ধী মেয়েটি জাহাঙ্গীর গাইনের সম্পর্কে ভাতিজি হয়। সে গতকাল বিকালে মেয়েটিকে তার ঘরে নিয়ে যায়। পরে তার ধর্ষণ করে । পরে প্রতিবেশীরা  দেখতে পেয়ে মেয়েটির বাবাকে ডেকে আনে। পরে  রাতেই ভেদরগঞ্জ থানায় মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে একটি ধর্ষন মামলা করেন।

ভেদরগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) বাহালুল 

খান বাহার বলেন, ঘটনার পরে প্রতিবন্ধী মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে একটি ধর্ষন মামলা করেন। আমরা আসামিকে গতকাল ভেদরগঞ্জ হাসপাতাল রোড থেকে গ্রেপ্তার করি। পরে তাকে আমারা  সকালে আসামীকে শরীয়তপুর জেলা কারাগারে পাঠিয়েছি। আর প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য শরীয়তপুর সদর সরকারি হাসপাতালে পাঠাই।

 

২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে শরীয়তপুর জেলায় গৃহীতব্য কর্মসূচী নিয়ে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত

নিউজ২৪লাইন:

নিজস্ব প্রতিবেদক :

২৫জুদ  স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন  করবেন  গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,এ উপলক্ষে শরীয়তপুর  জেলাপ্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে,  শরীয়তপুর জেলায় গৃহীতব্য কর্মসূচী নিয়ে শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান এর   সভাপতিত্বে  ভার্চুয়াল জুম মিটিং এর আয়োজন করা হয়, প্রধান অতিথি হিসেবে  ভার্চুয়াল জুম  মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পানি সম্পদ উপমন্ত্রী  একেএম এনামুল হক শামীম,  আরো উপস্থিত ছিলেন  শরীয়তপুর ০১ আসনে  সংসদ সদস্য  মোঃ ইকবাল হোসেন অপু, সংসদ সদস্য  সংরক্ষিত মহিলা আসন- পারভিন হক শিকার  এমপি, 

এবং শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বাবু অনল কুমার দে।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলার বিভিন্ন স্তরের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ,সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ,সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, বিভিন্ন স্তরের বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধি সহ ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

এসময় আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে শরীয়তপুর জেলায় গৃহীত বিভিন্ন কর্মসূচী নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

ডামুড্যা উপজেলায় নতুন নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হাসিবা খান যোগদান

নিউজ২৪লাইন:

মান আহম্মেদ সজিব // শরীয়তপুর প্রতিনিধি.

শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে যোগদান করেছেন ৩৪ তম ব্যাচের কর্মকর্তা হাছিবা খান। এর আগে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি ও পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আরডিসি হিসাবে দ্বায়িত্ব পালন করেন।

বুধবার (২৫ মে) সকাল ১০ টায় তিনি শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান এর কার্যালয়ে যোগদান করেন এবং ২৯ মে রবিবার ৪ টায় ডামুড্যা উপজেলায় নির্বাহী অফিসারের দায়িত্ব ভার গ্রহন করেন।

পারিবারিক জীবনে তিনি বিবাহিত, এক সন্তানের জননী।নব নিযুক্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাছিবা খান কে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান উপজেলা প্রকৌশলী আবু নাঈম নাবিল,উপজেলার কৃষি অফিসার শেখ আজিজুর রহমান,প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিম, সমাজসেবা কর্মকর্তা ওবায়দুর রহমান,মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এসএম গিয়াস উদ্দিন , ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বৃন্দ, নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারী সহ ডামুড্যা উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারী গন।

1 2 3 345