ফুটবল খেলা কে কেন্দ্র করে এক ছাত্রকে হত্যার উদ্দেশ্যে বেধড়ক মারধর, আহত ইসমাইল

আহত ইসমাইল

নিজস্ব প্রতিবেদক;

পোকখালী ইউনিয়ন ০৪ নং ওয়ার্ড মালমুরা পাড়ার বাসিন্দা ইসলামের পুত্র ইসমাইল কে একই এলাকার সিরাজুল ইসলামের তিন সন্তান এরশাদ,ইমরান ও ইয়াসিন সহ পিতার সহযোগিতায়, ০৮/০১/২৩ ইং রোজ রবিবার রাত আনুমানিক ৯ টার সময় বাড়ি ফেরার পথে মালমুরা পাড়াস্থ দিঘীর পাড় নামক স্থানে পৌঁছালে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দ্যেশ্যে দা দিয়ে কোপ মেরে মাথার উপর ভাগে আঘাত করার ফলে মাথা ফেটে রক্তাক্ত কাটা জখম সহ মারাত্মকভাবে আহত হয়।

গুরুতর জখমী ইসমাইল!

লোহার রড় দ্বারা এলোপাতাড়ি বারি মারলে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ইসমাইল। আহত ঈসমাইল বর্তমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পুরুষ সার্জারি বিভাগে ভর্তি আছে। সে মূমুর্ষ অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে। এই বিষয়ে আহত ব্যাক্তি ইসমাইলের সাথে কথা বললে জানান”,গত কয়েক দিন আগে আমরা কয়েক জন মিলে ফুটবল খেলার সময় তাদের পায়ের সাথে পায়ের আঘাত লাগলে তাদের সাথে মৌখিক তর্কবিতর্ক সৃষ্টি হয়। ঐ সময় আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেন।সেই তর্কবিতর্কের জের ধরে আমি বাড়ি ফেরার পথে আমার পথ আটকিয়ে আমাকে দা দিয়ে কোপ মারে ও লোহার রড় দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়েছে”।

ডামুড্যায় ‘আমরা রমণী’র শীতবস্ত্র বিতরণ

নিউজ২৪লাইনঃ
ইয়ামিন কাদের নিলয়
বিশেষ প্রতিনিধি

আজ ৬ জানুয়ারি (শুক্রবার) বিকাল ৪টায় শরীয়তপুরের ডামুড্যা উপজেলায় শরীয়তপুর-৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব নাহিম রাজ্জাকের বাসভবনে আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে আমরা রমণীর সদস্যদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

শীতবস্ত্র বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন আমরা রমণীর প্রধান প্রকল্প পরিচালক জনাব মামুন হোসেন, স্থানীয় সমন্বয়কারী তাহমিনা কাদের সুধা এবং মিডিয়া ও এক্সটার্নাল এফায়েরস শাখার স্থানীয় সমন্বকারী জনাব ইয়ামিন কাদের নিলয়।

শীতবস্ত্র বিতরণের আগে উক্ত অনুষ্ঠানে আমরা রমণীর প্রধান প্রকল্প পরিচালক জনাব মামুন হোসেন আমরা রমণীর সদস্যদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন। উক্ত বক্তব্যে তিনি আমরা রমণীর সকল প্রকল্প প্রচারণা নিয়ে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন এবং সামনের কিছু দক্ষতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও সেমিনার নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন।

উল্লেখ্য, ‘আমরা রমণী’ আব্দুর রাজ্জাক ফাউন্ডেশনের এমন একটি অঙ্গসংগঠন যার লক্ষ্য নারীদের অনুপ্রাণিত করা, সংগঠিত করা এবং ক্ষমতায়ন করা। আমরা রমণী এখন মোট দুইটি প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে- ‘Door to Door Mobile Entrepreneurs’ এবং ‘সুতোর খেলা’ (সেলাই ও ব্লক-বাটিক প্রশিক্ষণ)।

সখিপুরে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে

নিউজ২৪লাইনঃ

আমান আহমেদ সজিব // শরীয়তপুর প্রতিনিধিll
বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। নানা আয়োজন ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর হাজী শরীয়তউল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়ে দিনটি পালিত হয়েছে।

বুধবার (৪ জানুয়ারি-২০২৩) সকালে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে হাজী শরীয়তউল্লাহ কলেজ এ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এরপর সকাল ৯ টায় আনন্দ রেলি নিয়ে সখিপুর থানা আওয়ামীলীগ অফিসে আলোচনা সভা ও কেক কেটে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সখিপুর থানা ছাত্রলীগ সভাপতি আতিকুর রহমান সোমেল সরদার ও সাধারণ সম্পাদক তুষার ইমরান এবং সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব কামরুজ্জামান মানিক সরদার, জেলা পরিষদ সদস্য কহিনুর সুলতানা দোলাসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, ও থানা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ,ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

জলাবদ্ধতা নিরসনে শতাধিক কৃষকের মুখে হাসি ফোটালেন জেলা প্রশাসন

নিউজ২৪লাইনঃ
নুরুজ্জামান শেখ, শরীয়তপুর থেকে।

এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি রাখা যাবে না মর্মে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা বাস্তবায়নে শরীয়তপুর জেলার সুযোগ্য এবং অত্যন্ত পরিশ্রমী জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান এবং সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র বিগত দিনে কৃষি উদ্ভাবনী মেলা আয়োজন করেন। কৃষি ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যে কৃষি উদ্ভাবনী মেলায় জেলা প্রশাসক কৃষকদের কৃষি আধুনিক যন্ত্রপাতি ধানের বীজ, নার্সারি চারা, সার এবং ইরি সেচ পাম মেশিন ইত্যাদি বিতরণ করেন। জেলা প্রশাসক বলেন, কৃষি ফসল উৎপাদন করা যায় এমন জমি খেদ, বাড়ির আঙিনা ভিটা এক ইঞ্চি জমিও কৃষি অনাবাদি রাখা যাবে না। শরীয়তপুর সদর উপজেলার তুলাশার ইউনিয়নের উপর গাও বড়াইল গ্রামের প্রায় ৩৫ একর কৃষি জমি দীর্ঘ ২৫ বছর যাবত জলাবদ্ধতার কারণে অনাবাদী হিসেবে পড়েছিল। বিষয়টি ভুক্তভোগী কৃষকরা গণ শুনানিতে সুযোগ্য জেলা প্রশাসকের নজরে আনেন।
শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের ত্বরিত দিকনির্দেশনা ও তাগিদ অনুযায়ী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র কয়েকবার সরেজমিন পরিদর্শন করে সেচ পাম্প লাগিয়ে আবদ্ধ পানি অপসারণ করার ব্যবস্থা করেন। এতে প্রায় ৩৫ একর জমির শতাধিক কৃষক প্রায় বিশ বছর পর নতুন করে চাষের আওতায় আনতে পেরেছে। এছাড়া খাল খনন এর প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে। শীগ্রই সে প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। এর ফলে অচিরেই এই বিস্তীর্ণ এলাকায় বছরে তিন ফসল ফলনের অমিত সম্ভাবনা সৃষ্টি হতে চলেছে। জেলা প্রশাসনের এই জনবান্ধব উদ্যোগে ভীষণ খুশি স্থানীয় কৃষকগণ। “এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি থাকবে না“- মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই যুগোপযোগী নির্দেশ অনুসারে আরও এক তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করল শরীয়তপুর জেলা প্রশাসন।
শরীয়তপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র গণমাধ্যমকে বলেন, আপনারা জানেন যে, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যে, আমাদের এক ইঞ্চি মাটি ও যেন অনাবাদি না থাকে তার এই অংশ হিসেবে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পরপরই গত চার মাস যাবৎ কাজ করে যাচ্ছে জেলা প্রশাসন শরীয়তপুর। এবং তারই অংশ হিসেবে আমরা উপজেলা পর্যায় কাজ করে যাচ্ছি। শরীয়তপুর সদর উপজেলা এরকম বেশ কয়েকটি প্রকল্পে কাজ করেছি প্রায় এক হাজার তিনশত হেক্টর জমি জলাবদ্ধতা থেকে নিরসন করেছি। তারই একটি অংশ হিসেবে আজকে সকাল দশটায় তুলাশার ইউনিয়নের ওপর গাঁও বড়াইল গ্রামে যে অংশ রয়েছে সে অংশে প্রায় ৩৫ একর জমি জলাবদ্ধতা ছিল। আমরা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জলাবদ্ধতা অংশটি নিরসন করতে সক্ষম হয়েছি। ২০ থেকে ২৫ বছর যাবত জলাবদ্ধতার কারণে জমিগুলো অনাবাদি ছিল। এই জলাবদ্ধতা নিরসনের কারণে প্রায় শতাধিক কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে।

ভেদরগঞ্জের সখিপুর ছুরিরচর মুন্তাজ উদ্দিন মামুদ নুরানী মাদ্রাসা’র শুভ উদ্বোধন

নিউজ২৪লাইনঃ
আমান আহমেদ সজিব।। শরীয়তপুর।

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানাধীন উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের ছুরিরচর মুন্তাজ উদ্দিন মামুদ নুরানী মাদ্রাসা’র শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

রবিবার ( প্রহেলা জানুয়ারী ) সকাল ১১ টায় উপজেলার সখিপুর থানার উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের মুন্তাজ উদ্দিন মামুদ এর কান্দি গ্রামে এ মাদ্রাসার শুভ উদ্বোধন করা হয়।

পীরে কামেল সাহ্সুফী আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আবু সালেহ সাহেব এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব ইউনুছ আলী সরকার, সাবেক চেয়ারম্যান উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ ও ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক সখিপুর লল থানা আওয়ামী লীগ।

বিশেষ অতিথিঃ ফারুক আহম্মেদ চৌকিদার, সভাপতি শরীয়তপুর অন্তঃ জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন, সহ সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ডেকোরেশন, এবং বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক এবং সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে মোঃ সৈয়দ নাছির উদ্দিন মামুদ।

নার্সারি, প্লে, প্রথম, দ্বিতীয় এখানে এক সাথে ৫শত ছাত্র ছাত্রী বিনামূল্যে আরবী,কোরআন, হাদীস শিক্ষাসহ আধুনিক শিক্ষা গ্রহন করতে পারবে বলে জানা যায়। এবং ছাত্র- ছাত্রীদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়।

এবং দোয়া ও মুনাজাতের মধ্যে দিয়ে সকলের মাঝে তবারক বিতরণ করা হয়।

এসময় স্থানীয় উত্তর তারাবুনিয়া ১নং ইউপি সদস্য হোসেন হাওলাদার, মোঃ মোশাররফ সরকার, আলহাজ্ব সৈয়দ আহম্মেদ বেপারী, মোঃ অলিউল্লাহ মামুদ, মোঃ আক্কাছ মামুদ বালা, মোঃ মজিনল হক বেপারী, মেম্বার জালাল খান, আব্দুর সাত্তার খান, শাহ আলম মাল, আলহাজ্ব হেদায়েত উল্লাহ মামাুদ, তারেক মামুদ, হাজী, আব্দুর সাত্তার গাজী, মোঃ বাচ্চু প্রধানীয়া, আলহাজ্ব আয়ুব আলী মামুদ, লাল মিয়া বেপারী, জয়নাল আবেদীন আসামী, হাজী আঃ রহমান গাজী, সালেহ বেপারী, আলহাজ্ব শহীদুল্লাহ মামুদসহ স্থানীয় গন্যমান্য লোকজন ও বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় প্রধান অতিথিতির বক্তব্যে
আলহাজ্ব ইউনুছ আলী সরকার, মাদ্রাসার সর্বাধিক সহযোগিতার কথা জানান, সকলের কাছে দোয়া ও সহযোগিতার আহ্বান জানান।
যাতে করে এই মাদ্রাসাটি একটি আধুনিক মাদ্রাসা হিসেবে পরিচিত পান, সেই লক্ষ্যে এলাকার সকলের সহযোগিতা কামনা করেন ।

সার্বিক পরিচালনায় মাওলানা আব্দুল গনি।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার রাস্তার পাশে থাকা ছিন্নমূল গরিব ভিক্ষুকদের মাঝে শীত বস্ত্র কম্বল বিতরণ

নিউজ২৪লাইনঃ

নুরুজ্জামান শেখ শরীয়তপুর থেকে

বাংলাদেশ একটি শীত প্রধান দেশ। যে দেশে বছরের দুমাস, পৌষ -মাগ মাসে প্রচন্ড শীত পড়ে।
গত ২৯-৩০ ৩১ ডিসেম্বর ২০২২ প্রচন্ড কনকনে ঠান্ডা শীত পড়েছে। কনকনে হিম শীতের কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বেড়েছে ডায়রিয়া ঠান্ডা জনিত নিউমোনিয়া রোগের প্রকোপ। কনকনে শীত পড়ার কারণে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে বৃদ্ধ, শিশু রোগীর বেড়েছে চাপ। প্রচন্ড শীতের ভিতরে দেখা যাচ্ছে ছিন্নমূল গরিব হতদরিদ্র দরিদ্র ভিক্ষুক শরীয়তপুর সদর কোট আদালত সংলগ্ন বাস স্ট্যান্ড থেকে পালং বাজার বটতলা চৌরঙ্গীর মোড় নতুন বাস স্ট্যান্ড এর বিভিন্ন মার্কেটের সামনে দোকানের টিনের ছাউনির নিচে ফুটপাতে রাস্তার পাশে কেউ আবার খোলা আকাশের নিচে শীতকে আলিঙ্গন করে দিনযাপন করতেছে। গত ৩১ ডিসেম্বর রাত আটটা থেকে সাড়ে দশটা পর্যন্ত শরীয়তপুর সদর বাসস্ট্যান্ড থেকে পালং বাজার বটতলা চৌরঙ্গী মোড় এবং কোট আদালত বাস স্ট্যান্ড থাকা ছিন্নমূল গরিব ভিক্ষুকদের কে শীত বস্ত্র কম্বল বিতরণ করেন সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র মানবতার কর্মী রাস্তার পাশে থাকা ছিন্নমূল গরিব ভিক্ষুকদের কে নিজ তহবিল থেকে খাবার বিতরণ করেন এবং ৩০ জনকে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করেন।
শরীয়তপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র গণমাধ্যমকে জানান গত ২৯ ৩০ ৩১ ডিসেম্বর প্রচন্ড শীত পড়েছে। আমি দেখেছি রাস্তার পাশে থাকা ছিন্নমূল গরিব ভিক্ষুক অসহায় হত দরিদ্র মানুষ এই প্রচন্ড শীতে কষ্ট ভোগ করতেছে। এই শীতে যেন হাটবাজারে রাস্তার পাশে থাকা ছিন্নমূল গরিব ভিক্ষুক যেন শীতে কষ্ট ভোগ না করে,সেজন্য তাদের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করেছি। এই শীতে আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

স্বামীর অধিকারের দাবী নিয়ে এক নববধূর অনশন

নিউজ২৪লাইনঃ
শরীয়তপুর প্রতিনিধি ঃ
শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার কনেশ্বর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের সৈয়দবস্তা গ্রামের মোস্তফা বেপারীর বাড়িতে স্বামীর অধিকারের দাবীতে অনশন করছেন একই ওয়ার্ডের মজিদ বেপারীর ছোট মেয়ে শিলা আক্তার।

সরজমিনে গিয়ে এবং স্হানীয় সুত্র থেকে জানা যায় গত ৪ ডিসেম্বর কনেশ্বর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মোস্তফা বেপারীর ছেলে নাজমুল ও একই এলাকার মজিদ বেপারীর মেয়ে শিলা আক্তার গোপনে ভালবেসে বিয়ে করেন।কিন্তু নাজমুলের পরিবার এই বিয়ে কিছুতেই মেনে নিতে রাজি হয়নি। নাজমুলের পরিবারের চাপে নাজমুল শিলাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় একবার ডামুড্যা থানায় শিলা এবং নাজমুলের বিয়ে নিয়ে শালিস দরবার করে সিদ্ধান্ত হয় আগামী ১৫ দিন পর নাজমুল শিলাকে তার বাবা-মাকে বুজিয়ে তাদের বাড়িতে নিয়ে যাবে আর প্রত্যেক দিন নাজমুল শিলাদের বাড়িতে যাবে। কিন্তু নাজমুল তার পরিবারের চাপে শিলার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।তাই আজ ৩১ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় শিলা তার স্বামীর অধিকারের দাবীতে নাজমুলদের বাড়িতে চলে আসে। শিলা নাজমুলদের বাড়িতে আসার সাথে সাথে নাজমুলের পরিবার বাড়ি তালা মেরে চলে যায়।

এব্যাপারে নববধূ শিলা আক্তার বলেন,আমি আমার স্বামীর বাড়িতে থাকতে চাই। আমার বাবার বাসায় ফিরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। এখানে আমি না থাকতে পারলে আমি আত্মহত্যা করবো।

তবে ছেলের বাবা ১৫ দিন সময় চেয়েছে

স্হানীয় মহিলা মেম্বার মনি বলেন, আমরা আনুষ্ঠানিক ভাবে মেয়েকে আনবো

ডামুড্যা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসিবা খান বলেন, আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠাবো তবে মেয়েটির আইনের আশ্রয় নেয়া উচিৎ ।

1 2 3 355