মোদি বিরোধী আন্দোলন ধর্মীয় নয়, রাজনৈতিক।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী ও বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম  শতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকারের আহবানে বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদিকে দাওয়াত করা হয়েছে।সরকার শুধুমাত্র ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে অতিথি করেনি বরং মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও ভুটানের রাষ্ট্রপ্রধানদেরও অতিথি করেছে।

 

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছরপূর্তি উপলক্ষ্যে বিশ্বের ক্ষমতাধর অনেক রাষ্ট্রপ্রধান ভিডিও বার্তার মাধ্যমে বাংলাদেশ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে। জো বাইডেন,বরিস জনসন,জাস্টিন ট্রুডো এবং এরদোয়ান তাঁদের মধ্যে অন্যতম। ১৯৯৭ সালেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্বাধীনতার ২৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে তৎকালীন বিশ্বের আলোচিত রাষ্ট্র নায়কদের দাওয়াত করেছিলেন। ন্যালসন মেন্ডেলা, ইয়াসির আরাফাত তাঁদের মধ্যে অন্যতম।

 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী হয়ে মোদি ২০১৫ সালে ও বাংলাদেশে আগমণ করেছিল এবং বিএনপি ও অন্যান্য দলের সাথে বৈঠক করেছিলো। যদিও তখন ধর্মভিত্তিক কোন দল বিরোধিতা, বক্তৃতা-বিবৃতি বা আন্দোলনের ডাক দেয়নি। আবার ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদির দল বিজেপি ক্ষমতায় আসলে বিএনপি সহ ডান পাড়ার রাজনৈতিক কার্যালয় গুলোতে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছিল। তার মানে মোদি বিরোধী আন্দোলন আসলে কোন ইসলামী বা ঈমানী আন্দোলন নয় বরং গুটিকয়েক ধর্মীয় নেতাদের ক্ষমতায় আরোহণের সিড়ি মাত্র।

 

বাংলাদেশি ‍হুজুরদের কেবলা হলো ভারতের দারুল উলূম দেওবন্দ। তাঁদের প্রায় সকল আকাবিরের বসবাস ভারতে।  নরেন্দ্র মোদী ভারতেরই প্রধানমন্ত্রী। মোদীর কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে সেই আকাবিরগণের বক্তব্য ও তৎপরতা কী? দারুল উলূম দেওবন্দের কয়জন ছাত্র-শিক্ষক মোদী-বিরোধী আন্দোলনে শহীদ হয়েছেন?  বাংলাদেশে মাদ্রাসা-ছাত্রদের সামনে রেখে ক্ষমতার উচ্ছিষ্টভোজীরা, গভীর জলের অক্টোপাসেরা এবং রাজনীতির প্রমোদবালকেরা যে-লীলাখেলা করে তার পরিণাম কেন ছাত্রদেরই ভোগ করতে হয়?  ২০১৩ থেকে নিয়ে গতকাল পর্যন্ত যত মাদ্রাসা-ছাত্র নিহত হয়েছে, যত ছাত্র পঙ্গুত্ববরণ করেছে সে ব্যাপারে কারো বিরুদ্ধে কোনো মামলাই হয় নি, বিচার হওয়া তো দূরের কথা। পরিবার কেবল তাদের সন্তানের লাশটুকু পায়, এর বাইরে কিছু নয়।  মোদী-বিরোধী গতকাল যারা নিহত হয়েছে তাদের দায়-ভার কেউই নেবে না। না রাষ্ট্র, না মাদরাসা।

 

ইসলামে অতিথির সম্মান করাঃ

 

ইসলাম অতিথিকে পরিপূর্ণ সম্মান দেওয়ার তাগিদ দিয়েছে, চাই সে মুসলিম হোক, বিধর্মী হোক। বরং এটি কল্যাণ ও মহত্তের প্রতীক। সর্বপ্রথম হযরত ইবরাহীম (আ.)  পৃথিবীতে আতিথেয়তার প্রথা চালু করেন। রাসূল (সা.) ও  অতিথি সেবার বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন। মেহমানদারির সাথে ঈমানদারির ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। রাসূল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহ ও পরকালে বিশ্বাস রাখে সে যেন তার অতিথিকে  সম্মান করে।’ (বুখারী, হাদীস-৬০১৮; মুসলিম, হাদীস-৪৮)

 

আতিথেয়তা নবীদের সুন্নাহ, আদর্শ। কুরআনে হযরত ইবরাহীম (আ.) সম্পর্কে বলা হয়েছে, ‘আমার ফেরেশতারা (পুত্র সন্তানের সুসংবাদ নিয়ে) ইবরাহীমের কাছে আগমণ করল। তারা বলল, ‘সালাম’। তিনিও বললেন, সালাম। তিনি অবিলম্বে কাবাবকৃত গোবৎস নিয়ে এলো।’ (সূরা হুদ, আয়াত-৬৯)।

 

১৯৭১ সালে পাকিস্তানীরা আমাদের উপর গণহত্যা চালিয়েছিল যা ছিল স্পষ্টতই জুলুম। তা সত্যেও ১৯৭৪ সালে পাকিস্তানের ভুট্টু আসলে কোনো প্রতিবাদ হয়নি বরং আনন্দ মিছিল করা হয়েছিল। আজও আওয়ামী লীগ ছাড়া বিএনপি থাকলে সব হালাল হয়ে যেত কেননা বিএনপির মাধ্যমে ক্ষমতার চেয়ারে বসার সম্ভবনা থেকে যায়।তাছাড়া মোদি সৌদি আরব, কাতার, কুয়েত, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও তুরস্ক সফর করেছে, কই তখন তো ঈমানের প্রশ্ন আসে নাই।

বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ৪ জন রোহিঙ্গা আটক।

 

র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা উখিয়ার বালুখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ইয়াবাসহ ৪জন রোহিঙ্গা মাদক পাচারকারীকে আটক করেছে।

 

সুত্র জানায়,গত ৩০মার্চ বিকাল সোয়া ৩টারদিকে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের সংবাদ পেয়ে উখিয়া বালুখালীর ১১নং ময়নারঘোনা ক্যাম্পের রাস্তার বিপরীতে শাহ জব্বারিয়া মেডিকেল হলের সামনে অবস্থান নেয়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া করে থাইংখালী ১৩নং ক্যাম্পের ব্লক-এ/২ এর বাসিন্দা কালা মিয়ার পুত্র মোঃ সালাম (২১), আমান উল্লাহর পুত্র মোহাম্মদ রফিক (২৫), নুর ইসলামের পুত্র আব্দুল হাফেজ (২৪) ও মোহাম্মদ রিয়াজকে (২১) কে আটক করে। পরে তাদের দেহ তল্লাশী করে ৯হাজার ৯শ ৫০পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

 

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের পর জব্দকৃত ইয়াবাসহ ধৃত মাদক কারবারীদের উখিয়া থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।

মিয়ানমারে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় গুলি চালিয়েছে সেনাবাহিনী

মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে আরো দুইজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। এরমধ্যে শনিবার দেশটিতে প্রায় দুই মাস ধরে চলা বিক্ষোভে সবচেয়ে বেশি নিহত হয়েছেন। ১১৪ জনের মৃত্যু হয় বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম থেকে জানা যায়। এ নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে এ পর্যন্ত ৪৫৯ জন নিহত হয়েছেন নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে।

এদিকে শনিবার নিহতদের একজনের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায়ও গুলি চালিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। রোববার প্রত্যক্ষদর্শীরা সংবাদমাধ্যমকে এ কথা জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের

রয়টার্সের সঙ্গে কথা বলা তিন প্রত্যক্ষদর্শী ইয়াঙ্গুনের কাছে বাগো শহরে শনিবার নিহত ২০ বছর বয়সী শিক্ষার্থী থায়ে মং মংয়ের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে রোববার নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির ঘটনায় হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেছে কি-না, তাৎক্ষণিকভাবে তা নিশ্চিত করতে পারেননি।

থায়ে মং মংয়ের শেষকৃত্যে যোগ দেওয়া আয়ে নামে এক নারী বলেন, যখন আমরা তার জন্য বিপ্লবের গান গাইছিলাম, তখনই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা এসে আমাদের দিকে গুলি ছোড়েন। গুলির মুখে সেখানে থাকা সবাই পালিয়ে যান, আমরাও পালিয়ে যাই।

প্রতিবেদন বলছে, রোববার মিয়ানমারে পৃথক দুই গুলির ঘটনায় আরও দুই বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের পাশাপাশি জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোও। রাতে নেপিডোর কাছে একটি এলাকায় বিক্ষোভকারীদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে একজনের মৃত্যু হয়, জানিয়েছে মিয়ানমার নাও।

বাইডেন প্রশাসনও ট্রাম্পের নীতি অনুসরন করছে: ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন ডোনাল্ড ট্রাম্পের পথ অনুসরণ করছে এবং তারা ইরানের বিরুদ্ধে কথিত সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতি অব্যাহত রেখেছে।

গতকাল (মঙ্গলবার) সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে দেয়া এক পোস্টে জাওয়াদ জারিফ একথা বলেন। টুইটার পোস্টে তিনি ২০১৯ সালের জুন মাসে জো বাইডেনের দেয়া একটি বিবৃতি তুলে ধরেছেন।

 

২০১৮ সালে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প পরমাণু সমঝোতা থেকে বরে হয়ে যাওয়ার পর ওই বিবৃতি দেন জো বাইডেন। এতে তিনি ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের সমালোচনা ও দুঃখ প্রকাশ করে বলেছিলেন, ট্রাম্প প্রশাসনের উচিত ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা বাস্তবায়নে সহযোগিতা করা। জো বাইডেন আরো বলেছিলেন, কূটনীতির পথ থেকে সরে যাওয়ার কারণে এবং ট্রাম্পের এমন আচরণে মধ্যপ্রাচ্যে আরেকটি সামরিক সংঘাত সৃষ্টি হতে পারে।

বাইডেনের এই বিবৃতি উল্লেখ করে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, আপনার প্রশাসন ট্রাম্পের পথই অনুসরণ এবং বেআইনি নিষেধাজ্ঞাকে ইরানের বিরুদ্ধে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে।

জাওয়াদ জারিফ জোর দিয়ে বলেন, ট্রাম্প প্রশাসনের চাপ প্রয়োগের নীতি বাতিল করার জন্য বাইডেন প্রশাসনের সামনে এটাই সেরা সময়।

সাংগঠনিক দূর্বলতা কাটিয়ে উঠায় বেশি মনোযোগ দিয়েছে বিএনপি

আন্দোলন কর্মসূচির চাইতে এখন সাংগঠনিক দূর্বলতা কাটিয়ে উঠায় বেশি মনোযোগ দিয়েছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, এরইমধ্যে বিএনপির সব সাংগঠনিক শাখায় বেশিরভাগ কমিটি দেয়ার কাজ শেষ হয়েছে। আর দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, আগামী নির্বাচন ঘিরে দল পূর্ণগঠনের আরও পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে বিএনপি।

বরাবরই সাংগঠনিক দূর্বলতা নিয়ে বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব ঘরে কিংবা বাহিরে সমালোচনার মুখে পড়ে। তবে করোনা প্রকোপ বাড়ার পরপরই সাংগঠনিক দূর্বলতা কাটিয়ে উঠার বিষয়ে জোর দেয় বিএনপি। একে একে ঘোষণা করা হয় ছাত্রদলের জেলা, থানা, কলেজ শাখার কমিটি। জেলা-উপজেলায় কমিটি দেয়ার কাজ অনেকটাই শেষ যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের। এবার জেলা-মহানগর কমিটি দেয়ার কাজ শুরু করেছে মূলদল বিএনপি।

 

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, কেন্দ্র থেকে তৃনমূলে সংগঠনকে গতিশীল করার কাজ অনেকটাই শেষ। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কয়েক ধাপে মূল্যায়ন শেষে কমিটি ঘোষণা করছেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, আগামী নির্বাচনকে টার্গেট করে বিএনপিকে সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী করা হচ্ছে।

তবে এরইমধ্যে কমিটি ঘোষণা ঘিরে দেশের বিভিন্ন স্থানে পদবঞ্চিতরা ক্ষোভ দেখিয়েছিন। এনিয়ে বিএনপি নেতারা বলছেন, বড় দলে এমন ঘটনা খুব স্বাভাবিক।

বিমানের সিটের নিচে মিললো ৩৯টি সোনার বার

দুবাই থেকে আসা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজের সিটের নিচ থেকে ৩৯টি সোনার বার উদ্ধার করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

আজ সকালে বিমানটি শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণের পর তল্লাশি চালিয়ে সোনার বারগুলো উদ্ধার করা হয়।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক তানভীর আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, দুবাই থেকে আসা বিজি ০৪৮ ফ্লাইটি সকাল সাড়ে ৭টার দিকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এই ফ্লাইটে করে স্বর্ণ পাচার করা হচ্ছে বলে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ আব্দুর রউফের কাছে গোপন তথ্য ছিল।

 

ওই তথ্যের ভিত্তিতে যাত্রীরা নেমে যাওয়ার পর বিমানটিতে তল্লাশি চালানো হয়। এ সময় বিমানকে ৩-এ সিটের নিচে ৩৯ পিস স্বর্ণের বার পাওয়া যায়, যার মোট ওজন সাড়ে চার কেজি।

তানভীর আহমেদ আরও জানান, এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

করোনায় আক্রান্ত তথ্য সচিব খাজা মিয়া

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার সচিব খাজা মিয়া। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলে চিকিৎসাধীন তিনি।

তথ্য সচিবের একান্ত সচিব মোহাম্মদ এনামুল আহসান আজ দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের পরিচালক (তথ্য ও জনসংযোগ) মীর আকরাম উদ্দীন আহম্মদ জানান, সচিবদের মধ্যে তিনিই প্রথম টিকা নিয়েছেন। ২৮ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে টিকা কেন্দ্রে তিনি এবং তার স্ত্রী টিকা নেন।

1 2 3 16